বাংলাদেশ প্রতিবেদক: জামালপুরের উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্যপদ থেকে দেওয়ানগঞ্জ পৌরসভার মেয়র শাহনেওয়াজ শাহানশাহকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ ও দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে তার বিরুদ্ধে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

সোমবার দুপুরে জেলা আওয়ামী লীগের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে, ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে লাঞ্ছিত করেছেন পৌর মেয়র। বিষয়টি সামাজিক যোগযোগমাধ্যম, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় ব্যাপকভাবে প্রচার হয়েছে। এতে আওয়ামী লীগের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হয়েছে। সংগঠনের জন্য বিষয়টি বিব্রতকর।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুহাম্মদ বাকী বিল্লাহ সংবাদমাধ্যমকে বলেন, একজন জনপ্রতিনিধি প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী বা কর্মকর্তাকে লাঞ্ছিত করতে পারেন না। কিন্তু দেওয়ানগঞ্জ পৌরসভার মেয়র শাহনেওয়াজ শাহানশাহর বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ পাওয়া গেছে। এসব কর্মকাণ্ড জেলা আওয়ামী লীগ কখনো সমর্থন করে না। ফলে রোববার রাতে জরুরি সভা ডেকে তাকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

গত বৃহস্পতিবার ভোরে দেওয়ানগঞ্জ সরকারি হাইস্কুল মাঠে উপজেলা প্রশাসন বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। ওই অনুষ্ঠানের উপস্থাপকের দায়িত্ব পালন করেন উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মেহের উল্লাহ। ভোর থেকে ওই মাঠের শহীদ মিনারে উপজেলা প্রশাসনসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করছিলেন। এ সময় দেওয়ানগঞ্জ পৌরসভার মেয়র শাহনেওয়াজ শ্রদ্ধা নিবেদন করতে যান। উপস্থাপক শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য মাইকে প্রশাসন ও বিভিন্ন সংগঠনের নাম ঘোষণা করছিলেন। পৌরসভার নাম ৫ নম্বরে ঘোষণা করার কারণে মেয়র প্রকাশ্যে ওই শিক্ষা কর্মকর্তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও থাপ্পড় মারেন। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতেই মামলা করেন মেহের উল্লাহ।

Previous articleযুক্তরাষ্ট্রের একটি বাড়ি থেকে ৩ শিশুসহ ৭ জনের লাশ উদ্ধার
Next articleমালয়েশিয়া যেতে কর্মীদের খরচ পড়বে ২ লাখেরও কম: প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।