ফেরদৌস সিহানুক শান্ত: নির্দেশনা অমান্য করায় চাঁপাইনবাবগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো. মঞ্জুরুল হাফিজকে তলব করেছেন হাইকোর্ট। আদালতে হাজির হয়ে রুলের জবাব দিতে চার সপ্তাহের সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে।

বুধবার (২৯ ডিসেম্বর) হাইকোর্টে দায়েরকৃত ৫৮১/২০২১ নম্বর কনটেম্পট পিটিশনের শুনানি শেষে বিচারপতি মামনুন রহমান এবং বিচারপতি খোন্দকার দিলীরুজ্জামানের ডিভিশন বেঞ্চ তাকে তলব করেন। আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাড. মাকসুদা আখতার।

অ্যাডভোকেট মাকসুদা অখতার জানান, নির্দেশ অমান্য করায় চাঁপাইনবাবগঞ্জের জেলা প্রশাসককে তলব করেছেন হাইকোর্ট। আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে হাইকোর্টে হাজির হয়ে তাকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

আদালত সূত্র জানায়, চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার বালিয়াডাঙ্গা ইউনিয়নের ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ডকে বারঘরিয়া ইউনিয়নে অন্তর্ভুক্ত করার জন্য ২০২০ সালের ১৩ ডিসেম্বর হাইকোর্টে রিট পিটিশন দাখিল করা হয়। আদালতে দাখিলকৃত ৫৮০১/ ২০২১ নং রিট আবেদন শুনানি শেষে চাঁপাইনবাবগঞ্জের জেলা প্রশাসককে ২০২১ সালের ৩০ জুন বিষয়টি নিষ্পত্তি করে আদালতে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেওয়া হয়।

কিন্তু হাইকোর্টের নির্দেশনা উপেক্ষা করে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার বারঘরিয়া ও বালিয়াডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের আয়োজন করায় কেন জেলা প্রশাসকের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না জানতে চেয়ে রুল জারি করেন আদালত।

চার সপ্তাহের মধ্যে হাইকোর্টে হাজির হয়ে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে আদেশে। সদর উপজেলার বালিয়াডাঙ্গা ইউনিয়নের যাদুপুর গ্রামের ওমর ফারুক ও দুর্গাপুর গ্রামের জাকারিয়া নামে দুই ব্যক্তি ওই ইউনিয়নের ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ডকে বারঘরিয়া ইউনিয়নে অন্তর্ভুক্ত করার জন্য হাইকোর্টে এ রিট আবেদন করেন।

মুঠোফোনে রিটকারী ওমর ফারুক জানান, ইউনিয়ন পরিষদের কার্যালয়ের দুরত্বসহ নানা কারনে এই দুই ওয়ার্ডের জনসাধারণের সাথে কথা বলে বালিয়াডাঙ্গা ইউনিয়নের মধ্যে না থাকার সিধান্ত নেয়। এরই প্রেক্ষিতে বারোঘরিয়া ইউনিয়নে এই দুটি ওয়ার্ডকে যুক্ত করার আবেদন করা হয়েছে।

Previous articleঈশ্বরদীতে অসহায় ও দুস্থদের শীতবস্ত্র দিলেন কনক শরীফ
Next articleচাঁপাইনবাবগঞ্জে বিদেশি পিস্তলসহ অস্ত্র ব্যবসায়ী আটক
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।