বাংলাদেশ প্রতিবেদক: নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীতে নির্বাচনের ৩দিন পর মাছের প্রজেক্ট থেকে এক ইউপি সদস্য প্রার্থীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

নিহত জহিরুল ইসলাম (৫৩) উপজেলার বজরা ইউনিয়নের ৩নম্বর ওয়ার্ডের মৃত হায়াত আহমদের ছেলে এবং একই ওয়ার্ড থেকে পঞ্চম ধাপে অনুষ্ঠিত হয়ে যাওয়া ইউপি নির্বাচনে সে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে দ্বিতীয় স্থান অর্জন করে।

রোববার (৯ জানুয়ারি) সকাল ৯টার টার দিকে উপজেলার বজরা ইউনিয়নের ৩নম্বর ওয়ার্ডের ছনগাঁও গ্রামের রাস্তা সংলগ্ন একটি মাছের প্রজেক্ট থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহতের ছোট ভাই জাকির জানান, শনিবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে কে বা কাহারা আমার ভাইকে মুঠোফোনে কল করে ডেকে নেয়। এরপর থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন। এরপর রোববার সকাল ৬টার দিকে রাস্তার পাশে একটি জমিতে ওনার মরদেহ পড়ে থাকতে দাখে স্থানীয় এলাকাবাসী।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নিহত জহির স্থানীয় বজরা বাজারের একজন ব্যবসায়ী ছিল। পারিবারিক জীবনে সে ৩সন্তানের জনক ছিল। গত ৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে সে ইউপি সদস্য (মেম্বার) প্রদপ্রার্থী ছিলেন। ওই নির্বাচনে ৩জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে। তালা প্রতীকে ওই নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করে সে দ্বিতীয় স্থান অর্জন করে।

সোনাইমুড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হারুন অর রশীদ জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে সুরতহাল সম্পন্ন করে মরদেহ থানায় এনে রেখেছে। নিহতের গায়ে কোন আঘাতের চিহৃ ছিল না। ময়না তদন্তের জন্য মরদেহ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হবে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানা যাবে।

Previous articleপাবনায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩
Next articleশার্শার ১০ ইউপির চেয়ারম্যানের শপথ গ্রহন
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।