আবুল কালাম আজাদ: কুড়িগ্রামের উলিপুরে ১২-১৮ বছরের কোমল মতি শিক্ষার্থীরা টিকা নিতে এসে ভোগান্তির শেষ নেই। নেই কোন সঠিক ব্যাবস্থাপনা।

মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ১২ থেকে ১৮ বছর বয়সী শিক্ষার্থীদের জন্য করোনা টিকার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। কিন্তু টিকা নিতে এসে স্বাস্থ্য বিধি উপেক্ষিতসহ নানা ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছে উলিপুরের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের। যদিও সরকারের পক্ষথেকে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার কথা বলা হয়েছিল। কর্তৃপক্ষের সমন্বয়হীনতা আর দায়িত্বশীলদের উদাসীনতার কারণে এ পরিস্থিতিতে পড়তে হয়েছে তাদের।

জানা যায়, উপজেলায় মাধ্যমিক পর্যায় ৫০ হাজার শিক্ষার্থীকে টিকা প্রদানের লক্ষ্যে উপজেলা স্বাস্থ্য ও শিক্ষা বিভাগ কার্যক্রম শুরু করেন। বুধবার (জানুয়ারি ১২) সকাল ১০টা থেকে উপজেলার ডাকবাংলো, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস ও উলিপুর সরকারি কলেজ টিকা কেন্দ্রে সহস্রাধিক শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের উপস্থিতি ছিল অনেক। এ সময় বেশিরভাগ শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মুখে ছিল না মাস্ক, ছিল না সামাজিক দুরত্ব। স্বাস্থ্য বিধি উপেক্ষা করে যে যার মত ছোটাছুটি করছিল। তবে এ বিষয়ে কোন কার্যকরী পদক্ষেপ নিতে দেখা যায়নি সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের।

এই বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সুভাষ চন্দ্র সরকার বলেন, ১১ তারিখ থেকে টিকা কার্যক্রম চলছে। প্রথম দিন কিছুটা সমস্যা হয়েছিল। পরবর্তী দিন সকলের সমন্বয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে টিকা প্রদান করতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।”

Previous articleলকডাউনের মধ্যে মদের পার্টি করে বিপদে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী
Next articleটাঙ্গাইলের গোপালপুরে স্কুলছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পর প্রকাশ পেল ধর্ষণের খবর
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।