মোঃ জালাল উদ্দিন: সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কেন্দ্রে করোনা প্রতিরোধক টিকার প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজ শনিবার (০২ এপ্রিল) থেকে বন্ধ হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার (৩১ মার্চ) সকাল ১০টা থেকে করোনাভাইরাসের তৃতীয় টিকার বুস্টার ডোজ প্রদান শুরু হয়েছে।
এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কেন্দ্রে প্রদান করা হচ্ছে এই বুস্টার ডোজ। সিসিক মেয়র মোঃ আরিফুল হক চৌধুরী উদ্বোধন করেন এ বুস্টার ডোজ কার্যক্রমের বিকাল ৩টা পর্যন্ত চলবে।

বুস্টার ডোজ প্রদান কার্যক্রম, সিলেট সিটি করপোরেশনের (সিসিক) প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মোঃ জাহিদুল ইসলাম বলেন, প্রথম দিনে বুস্টার ডোজ দেওয়া হচ্ছে ২০০ জনকে।

সিসিকের স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্র মতে, আপাতত গণহারে বুস্টার ডোজ প্রদান করা হবে না। যারা করোনা টিকার প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজ নিয়ে ছয় মাস পেরিয়েছে, তাদেরকেই বুস্টার ডোজের বিবেচনায় আনা হচ্ছে। ঢাকায় স্বাস্থ্য বিভাগের উচ্চ পর্যায় থেকে মঙ্গলবার বুস্টার ডোজ প্রদানের জন্য সিলেটে পাঠানো হয়েছে ৬ হাজার ৩৩৩ জনের তালিকা। এ তালিকা থেকে দেওয়া শুরু হয়েছে বুস্টার ডোজ। বুস্টার ডোজের জন্য নতুন করে নিবন্ধনের প্রয়োজন নেই বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। যারা বুস্টার ডোজ পাবেন, তাদেরকে এসএমএসের মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে। এরপর সুরক্ষা ওয়েবসাইট থেকে প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে টিকা কার্ড পুনরায় প্রিন্ট করে সঙ্গে নিয়ে কেন্দ্রে যেতে হবে। এই টিকা কার্ডে বুস্টার ডোজ কলাম সংযোজন করা হয়েছে।

সিসিকের স্বাস্থ্য বিভাগের অপর এক সূত্র জানায়, যাদের টিকা কার্ডে কেন্দ্র সিলেট পুলিশ লাইন্স হাসপাতাল উল্লেখ থাকবে, তাদেরকে এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কেন্দ্রে গিয়ে টিকা গ্রহণ করতে হবে। কারণ, পুলিশ লাইন্স হাসপাতাল কেন্দ্র বন্ধ রয়েছে আপাতত। এদিকে, বুস্টার ডোজের জন্য নির্দিষ্ট কোনো কোম্পানির টিকা বেছে নেওয়ার সুযোগ নেই। বুস্টার ডোজের জন্য ফাইজার, মডার্না ও অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার যেকোনো একটি প্রদান করা হবে। সিলেটের ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. জন্মেজয় দত্ত বলেন, বর্তমানে মডার্না ও অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা মজুদ নেই সিলেটে। সেকারনে ফাইজারের টিকা দেওয়া হবে বুস্টার ডোজ হিসেবে।

এছাড়াও এদিন ওসমানী হাসপাতালের টিকা কেন্দ্রটি ৫তলা থেকে নীচতলায় স্থানান্তর করা হবে। বিষয়টি বৃহস্পতিবার ৩১ মার্চ ২০২২ইং এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে সিলেট সিটি করপোরেশনের (সিসিক) স্বাস্থ্য বিভাগ।
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, যারা কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনের প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজ যথাসময়ে গ্রহণ করেননি তারা বন্দরবাজারস্থ সিলেট সিটি কর্পোরেশনের নীচতলা স্থাপিত অস্থায়ী টিকাকেন্দ্রে গিয়ে টিকা গ্রহণ করতে পারবেন। এছাড়া কোনো নাগরিকের কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন টিকার সনদ সংক্রান্ত প্রয়োজন হলে নগর ভবনের নীচ তলায় স্থাপিত হেল্প ডেস্কে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।

সিসিকের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মোঃ জাহিদুল ইসলাম জানান, নাগরিকদের সুবিধা বিবেচনায় ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ৫ম তলা থেকে টিকা কেন্দ্রে কার্যক্রম স্থানান্তর করে ভবনের নীচতলায় আনা হয়েছে।

Previous articleরোজার মহিমায় মুগ্ধ হয়ে ইসলাম গ্রহণ করেন এই তরুণী
Next articleদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত ৮১, মৃত্যু নেই
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।