বাংলাদেশ প্রতিবেদক: পেঁয়াজের রাজধানী খ্যাত ফরিদপুরের সালথা উপজেলার প্রধান ফসল পেঁয়াজের এবার বাম্পার ফলন হয়েছে। বিঘাপ্রতি ৭০ থেকে ৮০ মন পেঁয়াজ পাচ্ছেন তারা। তবে ন্যায্যমূল্য না পাওয়ায় হতাশায় ভুগছেন চাষীরা।

এরই মধ্যে সালথা উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় পেঁয়াজ উত্তোলনের কাজ শুরু হয়েছে।

একাধিক চাষী জানান, ১ মন (৪০ কেজি) পেঁয়াজ চাষে খরচ প্রায় ১২০০ টাকা। কিন্তু বর্তমানে বাজারে ৪০ কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে সব থেকে ভালোটা ৭০০-৮০০ টাকা দরে। দিন দিন সবকিছুর দাম বাড়ছে, শুধু চাষীদের ফসলের দাম কমছে। বেঁচে থাকার তাগিদে চাষাবাদ করতে বাধ্য হচ্ছি।

ক্ষোভে অনেকেই বলেছেন, পেঁয়াজের দাম যখন কম থাকে সরকার এ ব্যপারে কোনো পদক্ষেপ নেয় না। দাম একটু বাড়লেই সরকার প্রশাসন নামিয়ে দেয়। আমরা লাভ করতে চাই না, আমাদের ফসলের ন্যায্যমূল্য চাই।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ জিবাংশু দাস বলেন, সালথায় চলতি মৌসুমে ১০ হাজার ৫৩৫ হেক্টর জমিতে পেঁয়াজ চাষাবাদ হয়েছে। পেঁয়াজের ফলন আশানুরূপ হয়েছে। কৃষক যদি পেঁয়াজের ন্যায্যমূল্য পায়, তাহলে সালথায় বাণিজ্যিকভাবে পেঁয়াজের চাষাবাদের আগ্রহী হবে।

Previous articleহতাশায় নিমজ্জিত বিএনপি নেতারা ঘরে বসে দুর্ভিক্ষের কাহিনী বানাচ্ছেন: কাদের
Next articleনোয়াখালীতে ট্রেনে কাটা পড়ে বৃদ্ধের মৃত্যু
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।