বাংলাদেশ প্রতিবেদক: বরগুনা জেলার পাথরঘাটায় কুয়েত প্রবাসী হাসানের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অনশনে বসেছেন পিরোজপুর জেলার জর্ডান প্রবাসী সোনিয়া নামের এক নারী। শুক্রবার থেকে হাসানের বাড়িতে অবস্থান নিয়েছেন সোনিয়া।

হাসান উপজেলার কালমেঘা ইউনিয়নের পশ্চিম আমড়াতলা এলাকার আলতাফ চৌকিদারের ছেলে। সোনিয়া পিরোজপুর জেলার পাড়েরহাট ইউনিয়নের বাদুরা এলাকার আব্দুস সামাদ জোমাদ্দারের মেয়ে। এর আগেও সোনিয়ার একটি বিয়ে হয়েছিল।

সোনিয়া জানান, জর্ডানে থাকার সময় ইমো গ্রুপের মাধ্যমে কুয়েত প্রবাসী হাসানের সাথে তার পরিচয় হয়। মোবাইল ফোনে নিয়মিত যোগাযোগের একপর্যায়ে প্রেমের সম্পর্ক তৈরি হয়। প্রায় তিন বছর ধরে তাদের মধ্যে প্রেমের সর্ম্পক চলে।

সোনিয়ার অভিযোগ, হাসান বিয়ের আশ্বাসে বাড়ি করার কথা বলে তিন লাখ টাকা হাতিয়ে নেন। পরে বিয়ের কথা বললে হাসান তাকে এড়িয়ে যেতে শুরু করেন। একপর্যায়ে হাসানের মোবাইল বন্ধ করে আমার নাম্বার ব্লাকলিস্টে রেখে দেযন। অনেক চেষ্টা করেও কোনো যোগাযোগ করতে না পেরে বাধ্য হয়ে পাথরঘাটায় হাসানের বাড়িতে এসেছি।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে হাসান বলেন, সোনিয়ার সাথে যে গ্রুপে পরিচয় হয়েছে সেখানে আরো অনেক প্রবাসী মেয়ে-ছেলে আছে। সবাই সবার সাথে কথা বলে। কথা বললেই যে বিয়ে করতে হবে এমন কোনো কথা নেই। সোনিয়ার সাথে বিয়ের কোনো কথা হয়নি। আমাকে হয়রানি করতে আমার বাড়িতে উঠেছে।

হাসানের মা ফাতিমা বেগম জানান, এ ঘটনায় পুলিশকে অবহিত করে মেয়ের মাধ্যমে তার বাবা-মাকে নিয়ে আসার জন্য বলেছি। তারা এলেই ঘটনার সমাধান করা হবে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে কালমেঘা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গোলাম নাসির বলেন, স্থানীয় ইউপি সদস্যকে দিয়ে এ বিষয়ে খোঁজ-খবর রাখছি। পারিবারিকভাবে বিষয়টি নিষ্পত্তি না হলে আইনি পদক্ষেপ নেয়া হবে।

Previous articleঈশ্বরদী হাসপাতাল জঞ্জাল মুক্ত করার নির্দেশ
Next articleনোয়াখালীতে জামায়াতের ৪৫ নেতাকর্মী গ্রেফতার
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।