বাংলাদেশ প্রতিবেদক: সুনামগঞ্জে ভ্রমণে গিয়ে বন্যায় আটকা পড়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২১ শিক্ষার্থী। তারা খাবার, সুপেয় পানিসহ নানা সংকটে দুরবস্থার মধ্যে রয়েছেন বলে জানা গেছে। উদ্ধারের জন্য তারা আরজি জানিয়েছেন।

শিক্ষার্থীদের দলটি তিন দিন আগে সুনামগঞ্জের টাঙ্গুয়ার হাওরে ঘুরতে গিয়েছিল।

এরই মধ্যে সুনামগঞ্জের বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় ভ্রমণে যাওয়া ঢাবির এই শিক্ষার্থীরা স্থানীয় একটি রেস্তোরাঁয় আশ্রয় নিয়েছেন। তাদের মধ্যে বেশ কয়েকজন ছাত্রীও রয়েছেন।

আটকাপড়া শিক্ষার্থীদের একজন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র মো: শোয়াইব আহমেদ। তিনি আজ শুক্রবার দুপুরে নয়া দিগন্তকে বলেন, তারা তিন দিন আগে ঘুরতে টাঙ্গুয়ার হাওরে যান। গতকাল সুনামগঞ্জের বন্যা পরিস্থিতির মারাত্মক অবনতি হয়। এই পরিস্থিতিতে তারা সুনামগঞ্জ শহরের ‘পানসী’ নামের একটি রেস্তোরাঁয় আশ্রয় নেন। সেখানে তারা আরো অনেকের সাথে আটকা পড়েছেন।

শোয়াইব আহমেদ বলেন, ‘আমরা এখানে খাবার, সুপেয় পানির সংকটে আছি। এখানে টয়লেটের ব্যবস্থাও নেই। এখানে মোবাইল ফোনের নেটওয়ার্ক ঠিকমতো কাজ করছে না। সব মিলিয়ে আমরা খুব দুরবস্থার মধ্যে আছি। আমাদের মধ্যে চরম অনিশ্চয়তা কাজ করছে। উদ্ধারের জন্য আমরা আরজি জানাচ্ছি।’

জানতে চাইলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর এ কে এম গোলাম রব্বানী বলেন, ‘আটকেপড়া শিক্ষার্থীদের উদ্ধারে আমরা স্থানীয় প্রশাসনের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করছি। স্থানীয় প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের কাছে এ ব্যাপারে আমরা সহযোগিতা কামনা করছি। প্রয়োজনে প্রশিক্ষিত উদ্ধারকারী দল পাঠিয়ে শিক্ষার্থীদের উদ্ধারের জন্য আমরা উদাত্ত আহ্বান জানাচ্ছি।’

Previous articleপীরগাছায় গোপনে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি গঠনের অভিযোগ, ক্ষুব্ধ অভিভাবক ও এলাকাবাসী
Next articleআগামী মাসে পেট্রোলিয়ামের দাম বাড়তে পারে: বিদ্যুৎ ও জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।