জি.এম.মিন্টু: মাদকের ব্যবহারে শারীরিক ও মানুষিক যে ক্ষতি করে তা অপূরনীয়। মাদকের আসক্ত মানুষ সমাজের বোঝা হিসেবে বিবেচিত। (আজ) রবিবার ২৬ জুন মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার ও অবৈধ পাচারবিরোধী আন্তর্জাতিক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে বক্তারা এসব কথা বলেন।

প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যশোরের জেলা প্রশাসক জনাব মোঃ তমিজুল ইসলাম খান বলেন, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অপরিহার্য। মাদকের কুফল সবারই জানা। তাই সচেতনতা সবার আছে। তাই এখনই দরকার মাদককে রোধ করাব। অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কাজী সায়েমুজ্জামান এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফিরোজ কবির, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর যশোর জেলার উপপরিচালক হুমায়ুন কবির খন্দকার, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপপরিচালক বিল্লাল বিন কাশেম, তথ্য কর্মকর্তা এলিন সাঈদ-উর রহমান প্রমুখ।

অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট জনাব কাজী সায়েমুজ্জামান বলেন, মাদকের ব্যবহার রোধ করতে সমন্বিত কর্মপরিকল্পনা করে কাজ করতে হবে। সমাজের সবাই সচেতন আছে তারপরও এখন দরকার সামাজিক আন্দোলন। মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর যশোর জেলার উপপরিচালক হুমায়ুন কবির খন্দকার বলেন, ১৯৮৯ সাল হতে এ দিবসটি জাতিসংঘের সদস্য রাষ্ট্রসহ বাংলাদেশ পালন করে। দেশের অন্য জেলার মতো যশোরও পালন করছে দিবসটি।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফিরোজ কবির বলেন, পুলিশ সব সময় মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার রোধকল্পে সর্বোচ্চটা দিচ্ছে। সকলে মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার রোধে কাজ করতে হবে। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপপরিচালক বিল্লাল বিন কাশেম বলেন, ধর্মীয় অনুশাসন ও বিধিনিষেধ মানলে মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার রোধ সম্ভব। যশোরের তথ্য কর্মকর্তা এলিন সাঈদ-উর রহমান বলেন, সকলে সচেতন থাকলে এবং সন্তানদের সাথে সময় দিলে মানক সমাজ থেকে চলে যাবে।

Previous articleমুন্সীগঞ্জে ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে জখম, ককটেল বিস্ফোরণ-লুটপাট
Next articleপদ্মা সেতুর ওপর গাড়ি থামিয়ে ছবি তোলার হিড়িক
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।