আতিউর রাব্বী তিয়াস: জয়পুরহাটের আক্কেলপুরে সড়ক মেরামতে পিচ গলানোর কাজে প্লাস্টিক, ছেড়া জুতা, ব্যাগ সহ নানা আবর্জনা পুড়িয়ে পরিবেশ দূষণ করা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে এক ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে।
উপজেলার গোপীনাথপুর ইউনিয়নে আক্কেলপুর-বগুড়া সড়কের গোপীনাথপুর হিমাগার সংলগ্ন স্থানে ওই ঘটনা ঘটছে।

সরেজমিনে গতকাল শুক্রবার বিকেলে গিয়ে দেখা গেছে, পিচ পোড়ানোর কাজ করছেন কয়েকজন শ্রমিক। তারা কয়েকটি পিচ গলানোর চুল্লিতে বিভিন্ন প্লাস্টিক ও রাবার জাতীয় আবর্জনা পুড়িয়ে ওই পিচ গলাচ্ছেন। এতে কালো ধোঁয়ায় সড়কসহ আশ পাশের এলাকায় ছেয়ে যাচ্ছে। সেই সাথে দূর্গন্ধে অতিষ্ঠ পথচারীসহ স্থানীয় লোকজন। এসব কাজের তদারকি করছেন উপজেলা প্রকৌশলী কার্যালয়ের এক কর্মচারী। পোড়ানো এসব বৈর্জ্য থেকে সৃষ্টিকালো ধোঁয়া যা পরিবেশ দূষণ করছে।

উপজেলা প্রকৌশলীর কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, গোপীনাথপুর ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন তিন মাথার মোড় থেকে পূর্বদিকে (আক্কেলপুর উপজেলার শেষ সীমানা পর্যন্ত) ক্ষেতলাল উপজেলার ফুলদীঘি বাজার সড়কের ১৯২৩ মিটার সড়ক মেরামতের কাজে ব্যায় ধরা হয়েছে ১ কোটি ৪১ লক্ষ ৬৯ হাজার ৮০৫ টাকা। কাজটি করছেন বগুড়ার মেসার্স রবি এন্ড ব্রাদার্স নামে একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান।

স্থানীয় বাসিন্দা আরিফুল ইসলাম বলেন, ‘আক্কেলপুর-বগুড়া সড়কটি অত্যন্ত বাস্ততম একটি সড়ক। সেই সড়কের পাশে এবং জনবসতিপূর্ণ এলাকায় পিচ গলানোর চুল্লিতে যেভাবে বিভিন্ন প্লাষ্টিক ও রাবার জাতীয় জিনিসপত্র পুড়িয়ে পরিবেশের ক্ষতি করছে। প্লাষ্টিক পোড়ানোর দূর্গন্ধে সড়কটি দিয়ে চলা দায়। বিষয়টি জরুরীভাবে দেখার জন্য তিনি সংশ্লীষ্ট কর্মকর্তার কাছে অনুরোধ জানান।

জরিনা বেগম নামে এক গৃহবধু বলেন, প্লাষ্টিক পোড়ানোর গন্ধে বাড়ির মধ্যে থাকা দায় হয়ে পড়েছে। নিষেধ করেও কোন লাভ হয় নি।

আক্কেলপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেড়িক্যাল অফিসার ডা. সাজিল-ই-জামান বলেন, ‘কালো ধোঁয়ায় মানব দেহের ক্যান্সার, ফুসফুস, চর্মরোগ সহ মানব দেহের ব্যপক ক্ষতি হয়। বিশেষ করে এজমা রোগীদের জন্য কালো ধোঁয়া বিষ হিসেবে বলা যায়।’

বগুড়ার মেসার্স রবি এন্ড ব্রাদার্স নামে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি রাশেদ হোসেন বলেন, পিচ গলানোর জন্য একমাত্র পদ্ধতিই হচ্ছে এটা। আবার কাঠও পোড়ানো যাবে না, তাহলে আমরা কাজ করব কিভাবে। আর সব জায়গাতেই এই কাজ এভাবেই সবাই করে থাকে।

উপজেলা প্রকৌশলী রকিব হাসান বলেন, আমাদের অফিস থেকে ওই ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে নিষেধ করা হয়েছে স্যান্ডেল না পুড়াতে। তার পরেও যদি সে এই কাজ করে তাহলে তার দায় দায়িত্ব ওই ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকেই নিতে হবে।

Previous articleকলাপাড়া রিপোর্টার্স ক্লাবের নতুন কমিটির অভিষেক
Next articleসমর্থকদের ভয়-ভীতি দেখিয়ে মত পরিবর্তন করানোর অভিযোগে জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে আ’লীগ প্রার্থীর বিরুদ্ধে
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।