জয়নাল আবেদীন: জাতীয় দলের অন্যতম ১০ নম্বর জার্সিধারী ফুটবলার রংপুরের সিরাত জাহান স্বপ্নার স্বপ্ন জয় । আর এই স্বপ্ন জয়ের অংশীদার স্বপ্নাকে রংপুরে বরণ করতে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে জেলা প্রশাসন, জেলা ক্রীড়া সংস্থা, জেলা ফুটবল এসোসিয়েশন, উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা পরিষদ। গরু জবাই করে সংবর্ধনা আয়োজনের ঘোষণা দিয়েছেন এলাকাবাসী। রংপুর জেলা ফুটবল এসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট বিশিষ্ট খেলোয়াড় ও সংগঠক মঞ্জুর আহমেদ আজাদ বলেছেন তাদের পক্ষ থেকেও স্বপ্নাকে সম্বর্ধনাদেয়ার ব্যাপারে ব্যাপক প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে । শুধু তাই নয় ওই দিন তিনি নিজ তহবিল থেকে ১লাখ টাকার চেক তুলে দিবেন স্বপ্নার হাতে ।

সদ্য সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জয়কারী স্বপ্না যেন রংপুরের মুকুট। এদিকে বৃহস্পতিবার বিকেলে স্বপ্নার বাড়িতে গিয়ে সংবর্ধনা আয়োজন বিষয়ে খোঁজ খবর নেন রংপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এবং উপজেলা চেয়ারম্যান । এসময় স্বপ্নার পরিবারকে নগদ বিশ হাজার টাকা প্রদান করা হয়। এর আগে স্বপ্নার মাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান এবং মিষ্টি খাওয়ান তারা। পরে সংবর্ধনার বিষয়ে সাংবাদিকদের বিস্তারিত জানান উপজেলা চেয়ারম্যান নাসিমা জামান ববি ও ইউএনও নুর নাহার বেগম।তারা বলেন সিরাত জাহান স্বপ্না যেদিন রংপুরে আসবেন সেদিন সৈয়দপুর বিমানবন্দরে তাকে অভ্যর্থনা জানানো হবে। পরে ফুটবল কন্যাদের গ্রাম পালিচড়ায় নির্মিত শেখ রাসেল স্টেডিয়ামে এক প্রীতি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে।

প্রীতি ম্যাচ শেষে স্বপ্নাকে জেলা প্রশাসন, জেলা ক্রীড়া সংস্থা, উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা পরিষদ ও পালিচড়াবাসী এবং সকল রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে দেয়া হবে বিশাল সবংর্ধনা। রংপুর সদর উপজেলা চেয়ারম্যান নাসিমা জামান ববি বলেন, উপজেলা পরিষদ নারী ফুটবলারদের সাথে শুরু থেকেই আছি, এখনও আছি, আগামীতেও থাকবো। স্বপ্নার পরিবারকে উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে তাৎক্ষনিকভাবে ২০ হাজার টাকা দেয়া হয়েছে। পরবর্তিতে আরো দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। রংপুর জেলার সেবক জেলা প্রশাসক মো: আসিব আহসান জানান, সম্ভাব্য চার পাঁচদিনের মধ্যেই সিরাত জাহান স্বপ্না রংপুরে আসতে পারে। স্বপ্নাকে বরণ করে নিতে সেদিন পালিচড়া মাঠে আয়োজন করা হয়েছে প্রীতি ফুটবল ম্যাচ, জেলা প্রশাসন ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সংবর্ধনা।

উপজেলা প্রশাসনকে সংবর্ধনা ও প্রীতি ম্যাচ আয়োজনের সবধরণের ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।এদিকে প্রশাসনের পাশাপাশি গ্রামের কৃতি ফুটবলার স্বপ্নাকে বরণ করে নেয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন এলাকাবাসী। স্বপ্নাকে বিমানবন্দর থেকে লালগালিচা দিয়ে বরণ করে নিবেন এলাকাবাসী। সেই সাথে পালিচড়া স্টেডিয়ামে প্রীতি ফুটবল ম্যাচ পরবর্তি সংবর্ধনা শেষে গরু জবাই করে খাওয়ানোর প্রস্তুতির কথা জানালেন কয়েকজন এলাকাবাসী। সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশীপ শিরোপা জয়ী সিরাত জাহান স্বপ্নার বাড়ি রংপুর সদরের সদ্যপুস্কুরিনী ইউনিয়নের পালিচড়ার জয়রাম গ্রামে। স্বপ্নার পিতা মোকছার আলী মা লিপি বেগম। স্বপ্নার বাবা একজন বর্গাচাষী। একসময় তাদের মাথা গোঁজার ঠাঁই ছিল না। স্বপ্না যেন ভাঙ্গাঘরে চাঁদের আলো।স্বপ্না সদ্যপুস্কুরিনী পালিচড়া ফুটবল দলের খেলোয়াড়। সিরাত জাহান স্বপ্না ২০১৩ সালে জাতীয় দলের ক্যাম্পে ডাক পায়, সেই থেকে এখন পযন্ত জাতীয় দলে খেলছেন। এই সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশীপে ৪ গোল করে দেশের জয়ে ভূমিকা রেখেছেন স্বপ্না।

Previous articleকুমিল্লা জেলার ওয়ারেন্ট তামিলকারী অফিসার হিসেবে পুরস্কার পেলেন এএসআই রিয়াজুল
Next articleমৌলভীবাজারের বেড়েছে ‘চোখ উঠা’ রোগের প্রকোপ
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।