জি.এম.মিন্টু: কেশবপুরে বেতিখোলা গ্রামে ভুমিদস্যু মজিদ গং কর্তৃক আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জোর পূর্বক ঘর নির্মানের চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বৃহস্পতিবার সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে,কেশবপুর উপজেলার মৃত কেরামত মোড়লের ছেলে বিল্লাল ও নিসার আলীর ছেলে আবু দাউদ ১২১ নং নারায়নপুর মৌজার ১৮৯৬ খতিয়ানে ৬১৩ ও ৬১৪ দাগ হতে ২.১৩ শতক জমি গত ২০২০ সালের ১৮-১১-২০ তারিখে প্রবিবেশী মৃত ছবেদ আলীর মেয়ে সেলিনার কাছ থেকে চলাচলের রাস্তা হিসেবে কবলা দলিল মুলে ক্রয় করে। যার দলিল নং-৪৮৪৮/২০। ক্রয়কৃত এই জমির উপর দিয়ে প্রায় ৩ যুগ ধরে ১০টি পরিবারের লোকজন চলাচল করে আসছে। প্রতিবেশী মৃত ছবেদ আলীর ছেলে মজিদ ও শাহিন দীর্ঘদিন ধরে চলাচলের এই রাস্তাটি জবর দখল করতে বিল্লাল ও দাউদ গংদের বিভিন্নভাবে হুমকী ধামকী ও মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করে আসছে। এঘটনায় বিল্লাল হোসেন বাদী হয়ে যশোর বিজ্ঞ জজ আদালতে মজিদ শাহিন ও আলী রেজাকে আসামী করে বিরোধপুর্ন ঐ চলাচলের রাস্তার উপর নিষেধাজ্ঞার একটি মামলা দায়ের করে। যার মামলা নং-৩৫৫/২২।

এদিকে বৃহস্পতিবার(২০অক্টোবর-২২) সকালে ভুমিদস্যু মজিদ ও শাহিনের নেতৃত্বে কয়েক জন ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী জোর করে উক্ত রাস্তার উপর ঘর নির্মানের চেষ্টা করে।এসময় ঘর নির্মান কাজে বিল্লাল ও দাউদ গং বাঁধা দিতে গেলে তারা অস্ত্রপাতি নিয়ে তাদেরকে প্রাননাশের হুমকী প্রদান করে।এরিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মজিদ গংদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে ভুক্তভোগী পরিবার জানায়।

Previous articleকেশবপুরে মুক্তিযোদ্ধা মোসলেম উদ্দীনের বিরুদ্ধে তদন্ত স্থগিত করলো হাইকোর্ট
Next articleগোমস্তাপুরে দীঘিতে গোসল করতে নেমে শিক্ষার্থীর মৃত্যু
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।