রবিবার, মে ২৬, ২০২৪
Homeসারাবাংলাউল্লাপাড়ায় পুকুর খনন বন্ধে কঠোর অভিযানে ভ্রাম্যমাণ আদালত

উল্লাপাড়ায় পুকুর খনন বন্ধে কঠোর অভিযানে ভ্রাম্যমাণ আদালত

সাহারুল হক সাচ্চু: সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় গত সাড়ে চৌদ্দ মাসে কৃষি জমিতে পুকুর খনন বন্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালত মোট ৫৪ টি অভিযান পরিচালনা করেছেন। এর মধ্যে চলতি বছরের গত আড়াই মাসে ২১ দিনে পুকুর খনন বন্ধে ৩৪ টি অভিযান পরিচালনা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত ।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে পুকুর খনন বন্ধ , মাটি কাটায় ব্যবহৃত এসকেভেটর মেশিনের ব্যাটারী ধংস এবং আলাদাভাবে ২ লাখ ৬৫ হাজার ৫ শ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে । উপজেলা নির্বাহী অফিসার ( ইউএনও ) ও এ´িকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ উজ্জল হোসেন এবং সহকারী কমিশনার ( ভুমি) ও এ´িকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেট ইশরাত জাহান বিভিন্ন সময়ে আলাদাভাবে এসব ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেছেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয় সুত্রে , উপজেলার বাঙ্গালা , সলঙ্গা ও রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নে পুকুর খনন বন্ধে সবচেয়ে বেশী সংখ্যক ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়েছে । সবশেষ গত ৭ মার্চ উপজেলার দ্#ু৩৯;জায়গায় সরকারী অনুমতি না নিয়ে পুকুর খনন ও মাটি বিক্রি করার অপরাধে ভ্রাম্যমাণ আদালত চার জনকে এক লাখ ষাট হাজার টাকা জরিমানা করেন । উপজেলা নির্বাহী অফিসার ( ইউএনও ) ও এ´িকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ উজ্জল হোসেন এ অভিযান পরিচালনা ও অর্থ জরিমানা করেন । উপজেলার সলঙ্গা ইউনিয়নের ভেংড়ী গ্রামে সরকারী অনুমতি না নিয়ে পুকুর খনন করে মাটি বিক্রির অপরাধে বালুমহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০ এর ১৫ ধারায় কৈমাঝুরিয়া গ্রামের মইনুল হোসেন ও হিটলার মিয়াকে পঞ্চাশ হাজার টাকা করে মোট এক লাখ টাকা এবং এসকেভেটর মেশিনের চালক ভরমোহনী গ্রামের সেলিম রেজাকে সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮ এর ৬৬ ধারায় দশ হাজার টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমান আদালত ।

এছাড়া এসকেভেটর মেশিনের ব্যাটারী ধংস করে দেওয়া হয়েছে । অপরদিকে চক নিহাল গ্রামের মোয়াজ্জেম হোসেনের ছেলে পলাশকে সরকারী অনুমতি না নিয়ে নিজ জমিতে পুকুর খননের অপরাধে পঞ্চাশ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। গত জানুয়ারি মাসে রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের ভট্রমাঝুরিয়া , কালিকাপুর , দক্ষিণ পুস্তিগাছা এবং বাঙ্গালা ইউনিয়নের তিন জায়গায় সরকারী অনুমতি না নিয়ে কৃষি জমিতে পুকুর খনন ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে বন্ধ করে দেওয়া হয়। এছাড়া সলপ ইউনিয়নের কৃষকগঞ্জে , বড়হর ও হাটিকুমরুল ইউনিয়নে পুকুর খনন বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে । গত ফেব্রুয়ারী মাসে বাঙ্গালা ইউনিয়নের ঘোনা কুচিয়ামারা , বাঙ্গালা , সলঙ্গা ইউনিয়নের নাইমুড়ি , রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের অনুখা , আগরপুর , কচিয়ার বিল , কালিকাপুর , দক্ষিণ পুস্তিগাছা , ভট্রমাঝুরিয়া , পুর্ণিমাগাঁতী ইউনিয়নের পুর্ণিমাগাঁতী গ্রামে , বড়হর ইউনিয়নের অলিপুর এলাকায় কৃষি জমিতে পুকুর খনন বন্ধ করে দেওয়া হয় । চলতি মার্চ মাসে উপজেলার রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের দবিরগঞ্জে ,পাঠানপাড় , পুর্ণিমাগাঁতী ইউনিয়নের ছয়বাড়িয়া , উধুনিয়া ইউনিয়নের খোর্দ গজাইল , বাঙ্গালার মাঝিপাড়া , সলঙ্গার আঙ্গারুতে পুকুর খনন বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে । প্রতিটি এলাকায় পুকুর খনন বন্ধ করে দেওয়া ছাড়াও মাটি কাটায় ব্যবহৃত এসকেভেটর মেশিনের ব্যাটারী ধংস করে দেওয়া হয়েছে । গত বছর রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের হরিণচড়া , পুস্তিগাছা , জালসুকা , কালিকাপুর , বাঙ্গালার চেংটিয়া এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে পুকুর খনন বন্ধ ও এসকেভেটর মেশিনগুলোর ব্যাটারী ধংস করে দেওয়া হয়।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার ( ইউএনও ) মোঃ উজ্জল হোসেন বলেন বিগত সাড়ে চৌদ্দ মাসে বিভিন্ন মাধ্যমে সরকারী অনুমতি না নিয়ে কৃষি জমিতে পুকুর খননের তথ্য পেয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে পুকুর খনন বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে । গত ৭ মার্চ একাধিক এলাকায় অভিযান চালিয়ে পুকুর খনন বন্ধ করে দেওয়া ও অর্থ জরিমানা করা হয়েছে । সরকারী অনুমতি না নিয়ে পুকুর খনন ও মাটি বিক্রির তথ্য অভিযোগ পেলেই ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চালানো হবে।

আজকের বাংলাদেশhttps://www.ajkerbangladesh.com.bd/
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।
RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments