মঙ্গলবার, জুলাই ২৩, ২০২৪
Homeসারাবাংলাশাহজাদপুরে ১৫ লাখ টাকায় স্কুলছাত্র হত্যা মামলা রফা করলেন ইউপি চেয়ারম্যান

শাহজাদপুরে ১৫ লাখ টাকায় স্কুলছাত্র হত্যা মামলা রফা করলেন ইউপি চেয়ারম্যান

বিমল কুন্ডু: সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে বহুল আলোচিত স্কুল ছাত্র সুমন (১৫) হত্যা মামলা সালিশ বৈঠকের মাধ্যমে ১৫ লক্ষ টাকায় রফা করেছেন উপজেলার বেলতৈল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম। গত ২৭ মে শনিবার বেলতৈল ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে দিনভর সালিশ বৈঠক শেষে ওই হত্যা মামলার ১২ জন আসামীকে ১৫ লক্ষ টাকা জরিমানা করে হত্যা মামলা মিমাংসা করা হয়েছে বলে একাধিক সূত্রে জানা গেছে ।

এদিকে চাঞ্চল্যকর শিশু সুমন হত্যা মামলা সালিশ বৈঠকের মাধ্যমে মীমাংসা করার ঘটনায় এলাকাজুড়ে তীব্র সমালোচনা ও ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। স্থানীয় অনেকেরই অভিযোগ ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম আসামী পক্ষের সাথে যোগসাজসে বাদীপক্ষকে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে এ রফা করেছেন। সূত্র মতে, হত্যা মামলা গ্রাম্য সালিশে মীমাংসা করায় খুনীদের প্রশ্রয় দেয়া হয়েছে। এর ফলে অপরাধীরা আরও বেপরোয়া হয়ে উঠবে।

আজ ২৯ মে সোমবার সরজমিন এলাকা ঘুরে জানা গেছে, ইউপি চেয়ারম্যানের নির্দেশে বেলতৈল ইউনিয়ন পরিষদের ১ নং ওয়ার্ডের মেম্বার আব্দুস ছালাম রাজা শনিবার ওই সালিশ বৈঠক আহ্বান করেন। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম। ওই সালিশ বৈঠকে জালালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাজী সুলতান মাহমুদ, সামশাদ আলি, আব্দুর রশিদ, হাবিবুল্লাহ নগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মাজেদ আলি সহ বিভিন্ন গ্রামের প্রধানবর্গ উপস্থিত ছিলেন। রীতিমতো ঘটা করে আয়োজিত সালিশে ১৫ সদস্যের একটি রায় বোর্ড গঠন করা হয়। আলোচনা সাপেক্ষে রায় ঘোষনা করেন হাবিবুল্লাহ নগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মাজেদ আলি। রায় ঘোষনাকালে মাজেদ আলি বলেন, কয়েকজন শিশু এ হত্যাকান্ড ঘটিয়েছে এটা সত্য। কিন্তু নিহত সুমনের বাবা সুলতান প্রামাণিক একজন দিনমজুর। তার পক্ষে এ মামলা চালানো সম্ভব নয়। তাই রায় বোর্ড সার্বিক বিষয় বিচার বিশ্লেষণ করে ১২ জন আসামীকে ১৫ লক্ষ টাকা জরিমানা করেছেন। জরিমানার টাকা আসামীপক্ষ বাদিপক্ষকে প্রদান করবে বলে রায়ে উল্লেখ করা হয়েছে।

জানা গেছে, উপজেলার বেলতৈল গ্রামের দিনমজুর সুলতান প্রামাণিকের ছেলে সুমন বেলতৈল উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেনীর ছাত্র ছিল। গত বছরের ১২ জুন বিদ্যালয়ের অর্ধবার্ষিকী পরীক্ষা চলাকালে সুমনে পাশে বসা সহপাঠীরা সুমনকে পরীক্ষার খাতা দেখাতে বলে। কিন্তু সুমন খাতা দেখাতে অস্বীকার করে। এর জের ধরে পরীক্ষা শেষে বাড়ি ফেরার পথে সুমনকে তার সহপাঠীরা বেদম মারপিট করে। এসময় আশংকাজনক অবস্থায় সুমনকে প্রথমে সিরাজগঞ্জ এবং পরে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা হয়। অবশেষে ২২ জুন চিকিৎসাধীন অবস্থায় সুমন মারা যায়। পরে ২৪ জুন সুমনের বাবা সুলতান প্রামাণিক বাদি হয়ে ১২ জনকে আসামী করে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। পুলিশ তদন্ত শেষে ১০ জনকে দোষী সাব্যস্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করে। মামলাটি বর্তমানে বিচারধীন রয়েছে।

এদিকে সালিশ বৈঠকে হত্যা মামলা মিমাংসা করার বিষয়ে ইউপি সদস্য আব্দুস ছালাম রাজা জানান, চেয়ারম্যানের নির্দেশে তিনি ওই বৈঠক আহ্বান করেন। অন্যদিকে রায় ঘোষনাকারী হাবিবুল্লাহ নগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মাজেদ আলি সালিশ বৈঠকে ১৫ লক্ষ টাকায় রফা করার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, বেলতৈল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলামের নেতৃত্বে সালিশ বৈঠক হয়েছে। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, হত্যা মামলার বাদি সুলতান প্রামাণিক ঘটনাটি মীমাংসার জন্য আমার বাড়িতে কমপক্ষে ১০ বার এসেছেন। তার আগ্রহের কারনেই ইউপি চেয়ারম্যান সালিশ বৈঠকের আয়োজন করেন। তিনি বলেন রায় বোর্ডের সর্বসম্মত সিদ্ধান্তনুযায়ী আমি রায় ঘোষনা করেছি। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা মীমাংসার একটা প্রক্রিয়া করেছি মাত্র। মামলার রায় দেয়ার এখতিয়ার সংশ্লিষ্ট আদালতের। আদালত যে রায় দিবেন, সবাইকে তা মানতে হবে। এ বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলামের সাথে মোবাইল ফোনে বার বার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি। তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

অন্যদিকে সালিশ বৈঠকের মাধ্যমে হত্যা মামলা মিমাংসার বিষয়ে সিরাজগঞ্জ জেলা জজ কোর্টের সিনিয়র আইনজীবী এ্যাডভোকেট আনোয়ার হোসেন বলেন, গ্রাম্য সালিশ বৈঠক ডেকে হত্যা মামলা মিমাংসা করার ক্ষমতা চেয়ারম্যানের নেই। দেশে এ ধরনের কোন আইন নেই। তারপরও চেয়ারম্যান যদি এ ধরণের কিছু করে থাকেন তবে তিনি ক্ষমতার অপব্যবহার করেছেন যা রীতিমতো অন্যায় ও অপরাধ।

অন্যদিকে শাহজাদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ নজরুল ইসলাম মৃধা জানান, মামলাটি আদালতে বিচারাধীন রয়েছে। হত্যা মামলা মিমাংসা করার ক্ষমতা গ্রাম প্রধানদের নেই। আদালত যে রায় দিবেন সবাইকে তা মানতে হবে।

আজকের বাংলাদেশhttps://www.ajkerbangladesh.com.bd/
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।
RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments