সোমবার, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২৪
Homeসারাবাংলাদক্ষিনাঞ্চলের উন্নয়নে ভোলার গ্যাস ব্যবহারের দাবিতে  মানববন্ধন ও সমাবেশ 

দক্ষিনাঞ্চলের উন্নয়নে ভোলার গ্যাস ব্যবহারের দাবিতে  মানববন্ধন ও সমাবেশ 

বাংলাদেশ প্রতিবেদকঃ ইন্টাকোর সাথে সম্পাদিত চুক্তি বাতিলের দাবি এবং দক্ষিনাঞ্চলের উন্নয়নে ভোলার গ্যাস ব্যবহারের দাবিতে  মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছে ভোলার গ্যাস রক্ষা আন্দোলন নামের একটি সংগঠন।
আজ ২৭ অক্টোবর ২০২৩ শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে দক্ষিনাঞ্চলের উন্নয়নে ভোলার গ্যাস রক্ষা আন্দোলন, ঢাকার  সমন্বয়কারী সাবেক ছাত্রনেতা রফিকুল ইসলাম সুজন সমাবেশের সভাপতিত্ব করেন। সমাবেশ পরিচালনা করেন,  খান আসাদুজ্জামান মাসুম এবং সাজ্জাদ হোসেন।
বক্তব্য রাখেন, রাজনীতিবিদ অধ্যাপক আব্দুস সাত্তার, ডা. হারুন অর রশিদ, আইনজীবী নেতা এড.  আবু হানিফ, যুবনেতা মোহাম্মদ সামসুল ইসলাম সুমন, ছাত্রনেতা গৌতম শীল, দিপ্ত মিত্র, এড. মামুন, সাংবাদিক জিলানী মিল্টন,আশিকুল ইসলাম জুয়েল। উপস্থিত ছিলেন,  উত্তম দাস, আফজাল হোসেন বাচ্চু, এড. নুরুদ্দীন,  শংকর মন্ডল,  মনিরুজ্জামান মনির, অনুপ কুমার কুন্ড, হুমায়ূন কবির মন্টু, কাজী মঞ্জরুল ইসলাম শাহীন,  মাহাবুবুর রহমান প্রমুখ ।
১৯৯৫ সালে আবিস্কৃত ভোলার  প্রথম গ্যাসকুপ শাহাবাজপুরের গ্যাস দিয়ে উৎপাদিত ৪৮০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে সংযুক্ত রয়েছে। বিগত কয়েক বছরে রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান বাপেক্স ০৯টি কুপ খনন করে ৩ ট্রিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস মজুদ থাকার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে। ভোলার এ গ্যাস পিছিয়ে পড়া দক্ষিনাঞ্চলের শিল্পায়নে ব্যবহার করে ব্যাপক কর্মসংস্থান করা সম্ভব।
জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের একটি মহল ভোলার গ্যাস দক্ষিনের উন্নয়নের কাজে না লাগিয়ে দেশী-বিদেশী কম্পানীর স্বার্থে ইতিপুর্বে বিদেশে রপ্তানীর পায়তারা করেছে,  আবার এখন দেশের গ্যাসের সংকটকে পুজি করে ইন্টাকো নামে একটি কম্পানীকে দিয়ে ভোলার গ্যাস অন্যত্র ব্যবহারে পায়তারা করছে। বক্তারা বলেন, পর্যাপ্ত শিল্প উপযোগী জমি, পায়রা  সমুদ্রবন্দর, পায়রায় বিদ্যুৎ উৎপাদনের হাব তৈরী হওয়া এবং পদ্মা সেতুর কল্যানে যে বিনিয়োগ ও শিল্পায়নের জন্য ভোলা গ্যাস খুবই গুরুত্বপুর্ণ অবদান রাখতে পারবে। তাই দক্ষিনাঞ্চলবাসীর বৃহত স্বার্থে ইন্টাকো কম্পানীর সাথে সম্পাদিত ভোলার গ্যাস বিক্রির চুক্তি বাতিল করতে হবে। তারা বলেন, দেশের স্বার্থে যদি ভোলার গ্যাস ব্যবহার একান্তই করতে হয় সেক্ষেত্রে- দক্ষিণাঞ্চলে শিল্পায়নের জন্য আগামী ৩০বছর কি পরিমান গ্যাস প্রয়োজন রয়েছে সেটা নির্ধারন করে সে পরিমান গ্যাস মজুদ রাখতে হবে। এর বাইরে যে কোন উদ্যোগ আমার দক্ষিনাঞ্চলের নাগরিকরা প্রতিরোধ করবো।
সসমাবেশে বক্তারা, আগামী ৩১ অক্টোবর মঙ্গলবার ভোলায় দক্ষিনাঞ্চলের জেলা সমুহের ঘেরাও কর্মসুচি সফল করার আহবান জানানো হয়।
আজকের বাংলাদেশhttps://www.ajkerkagoj.com.bd/
Ajker Bangladesh Online Newspaper, We serve complete truth to our readers, Our hands are not obstructed, we can say & open our eyes. County news, Breaking news, National news, bangladeshi news, International news & reporting. 24 hours update.
RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments