বাংলাদেশ প্রতিবেদক: দেশে অনলাইনে বিভিন্ন বৈধ পণ্যের আড়ালে বিক্রি হচ্ছে আমদানি নিষিদ্ধ যৌন সামগ্রী। সম্প্রতি রাজধানীর মিরপুরে একটি শপিংমলে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনীর অভিযানে বিপুল পরিমাণ যৌন সামগ্রী জব্দ করা হয়েছে। গ্রেপ্তার করা হয়েছে মূল হোতাকে।

পুলিশ বলছে, ক্রেতাদের বেশিরভাগই তরুণ-তরুণী। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বিশৃঙ্খল জীবনযাপনের কারণেই উঠতি বয়সীরা জড়িয়ে পড়ছে এসবে।

শপিংমলে গিয়ে দেখা যায়, আমদানি নিষিদ্ধ যৌন সামগ্রীর স্তূপ। বিদেশ থেকে বৈধ পণ্যের চালানের সঙ্গে অবৈধ এসব দ্রব্য আমদানি করেছে অসাধু ব্যবসায়ীরা। দেশে আনার তুলে দেয়া হচ্ছে আসল সিন্ডিকেটের কাছে। তারা ছড়িয়ে দিচ্ছে নির্দিষ্ট ক্রেতাদের কাছে।

অনলাইনে অর্ডার করলেই এসব যৌন উত্তেজক সামগ্রী পৌঁছে দেয়া হচ্ছে ক্রেতার কাছে। বিক্রি করা হচ্ছে সরাসরিও।

রাজধানীর মিরপুরের একটি শপিং কমপ্লেক্সে অভিযান চালিয়ে গোয়েন্দা পুলিশ উদ্ধার করেছে বিপুল পরিমাণ আমদানি নিষিদ্ধ পণ্য। গ্রেপ্তার করা হয়েছে মূল হোতাকে। পুলিশ বলছে, এসব ক্ষতিকর দ্রব্যের ব্যবহারকারীদের বেশিরভাগই তরুণ-তরুণী।

উপ-পুলিশ কমিশনার ওয়াহিদুল ইসলাম বলেন, এগুলো তারা নিজেরাই প্রস্তুত করে বিক্রি করত। স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকারক। নতুন প্রজন্মের কাছে অনলাইনে বিজ্ঞাপন দিয়ে তারা বিক্রি করে আসছিল।

মনোরোগ বিশেষজ্ঞ মেখলা সরকার বলছেন, উঠতি বয়সের কল্পনার জগৎ এবং সুস্থ জীবন যাপন থেকে দূরে থাকায় ঝুঁকছে বিকৃত যৌনাচারে।

চলতি বছরের জানুয়ারিতে রাজধানীর কলাবাগানে একজন শিক্ষার্থীর মৃত্যুর ঘটনায় তার শরীরে ফরেন বডির আলামত করা হয়েছিল কয়েকজনকে।

Previous articleফেসবুকে হতাশার কথা লিখে রাবি শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা
Next articleতালেবান সরকারের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হলেন প্রখ্যাত চিকিৎসক
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।