কাগজ প্রতিবেদক: ডাকসু নির্বাচনের কারচুপির অভিযোগে ভিসি কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়েছে ভোট বর্জনকারী সব জোট। সেখান থেকে প্রার্থীরা ঘোষণা দিয়েছেন পুনরায় তফসিল ঘোষণা না দেয়া পর্যন্ত ভিসির কার্যালয়ে অবস্থান কর্মসূচি চালিয়ে যাবেন তারা। সোমবার বিকেলে প্রধান নির্বাচনী কর্মকর্তা অধ্যাপক ড. এস এম মাহফুজুর রহমানের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়ে এসে তারা এমন ঘোষণা দেন।
বিকেল চারটায় ভিসি কার্যালয় ঘেরাও করে চার জোটের প্রার্থী ও তাদের কর্মী সমর্থকরা।
এসময় চীফ রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় গিয়ে চার প্যানেলের প্রার্থীরা অভিযোগের বিষয়ে লিখিত দাবি জানায়। এতে তারা, ভোট বাতিল ও কারচুপির সাথে দায়ীদের বিচারের দাবি জানান।
তবে, চীফ রিটার্নিং কর্মকর্তা তার কোন ক্ষমতা নেই দাবি করে বিষয়টি নিয়ে উপাচার্যের সাথে আলাপ করবেন বলে জানালে শিক্ষার্থীরা সেখানে অবস্থান নেন।

এসময় সেখানে বক্তব্য রাখেন, প্রগতিশীল ছাত্রজোটের নেতা ও ভিপি প্রার্থী লিটন নন্দী, সতন্ত্র জোটের ভিপি প্রার্থী অরণি সেমন্তি খান, স্বাধিকার পরিষদের এম আর আসিফ, কোটা আন্দোলনের নেতা রাশেদ ও জোটের প্রায় শতাধিক প্রার্থী।
লিখিত অভিযোগে বলা হয়েছে, ডাকসু ও হল সংসদ নির্বাচনে ভোট প্রদানে বাধা দান, অনাবাসিক শিক্ষার্থীদের ভোট কেন্দ্রে ঢুকতে না দেয়া, কারচুপি, প্রার্থীদের ওপর ন্যাক্কারজনক হামলা, ভোট বাক্স নিয়ে লুকোচুরি, ভোট দেওয়ার পরও লাইনে দাঁড়িয়ে কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করাসহ বিভিন্নরকম অনিয়ম হয়েছে।
এসব ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে আমরা প্রগতিশীল ছাত্র ঐক্য, বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ, স্বাধিকার স্বতন্ত্র পরিষদ, স্বতন্ত্র জোট ও বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনসহ অধিকাংশ প্রার্থীই নির্বাচন বর্জন করেছি।
এ প্রহসনের নির্বাচন বাতিল করে অবিলম্বে নির্বাচনের পুনঃতফসিল ঘোষণা করতে হবে। কোনোক্রমেই এই প্রহসনের নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস ও মর্যাদাকে ভুলুণ্ঠিত করা যাবে না।

অতএব নির্বাচনটি বাতিল ও পুনঃ তফসিল ঘোষণার আশু পদক্ষেপ নেবেন বলে প্রত্যাশা করছি।
ওই লিখিত অভিযোগে স্বাক্ষরকারীরা হচ্ছেন- প্রগতিশীল ছাত্র ঐক্যের সহ-সভাপতি পদপ্রার্থী লিটন নন্দী, স্বাধিকার স্বতন্ত্র পরিষদের সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী এ আর এম আনিসুর রহমান, একই পদে বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের প্রার্থী উম্মে হাবিবা বেনজির, স্বতন্ত্র জোটের সহ-সভাপতি প্রার্থী অরণি সেমন্তি খান ও বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার পরিষদের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী রাশেদ খান।