বাংলাদেশ প্রতিবেদক: রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শিক্ষার্থীদের ওপর বর্বরোচিত হামলাসহ সারাদেশে সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাসেবায় অনিয়ম, অবহেলা ও রোগীর স্বজনদের সাথে অশোভন আচরণের প্রতিবাদে অনশন করছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ড. ফরিদ উদ্দীন খান।

সোমবার সকাল ১০টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের জোহা চত্বরে অবস্থান নিয়ে অনশন শুরু করেন। বিকেল ৫টা পর্যন্ত এই অনশন চলবে বলে জানিয়েছেন তিনি। এ সময় তার সাথে সংহতি জানিয়ে কয়েকজন শিক্ষার্থীকেও অনশনে যোগ দিতে দেখা গেছে।

ড. ফরিদ খান বলেন, চিকিৎসাসেবা নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে আজকাল ব্যাপক অসন্তোষ লক্ষ্য করা যাচ্ছে। চিকিৎসাপ্রার্থীদের ভোগান্তি আজ ভয়াবহ। চিকিৎসা নিতে এসে তারা অসহায় এবং অনিরাপদ বোধ করছেন। চিকিৎসাসেবা পাওয়ার মতো একটি মৌলিক অধিকার অর্জনের সুযোগ একদিকে যেমন অপ্রতুল অন্যদিকে তেমনি অনিরাপদ।’

নানা অনিয়মের কথা তুলে ধরে তিনি আরো বলেন, ‘সরকারি হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসাসেবায় চিকিৎসকদের অবহেলা এবং অনীহা প্রকট আকার ধারণ করেছে! দেশের চিকিৎসাসেবার প্রতি সাধারণ মানুষের অনাস্থা, অবিশ্বাস এবং ক্ষোভ দিনে দিনে বেড়ে চলেছে। এই চিকিৎসা সঙ্কটের পাশাপাশি বর্তমানে যুক্ত হয়েছে চিকিৎসাকেন্দ্রে রোগীর স্বজনদের নিরাপত্তাহীনতা।’

রোগীর স্বজনেরা ডাক্তারদের হাতে লাঞ্ছিত হচ্ছে দাবি করে ড. খান বলেন, ‘রামেকে একজন মুক্তিযোদ্ধাকে পর্যন্ত লাঞ্ছিত করা হয়েছে। সন্তানের সামনে বাবাকে হেনস্তা করা হয়েছে। রোগীর স্বজনেরা প্রায়ই ডাক্তারদের হাতে নিগ্রহের শিকার হচ্ছে যা অনাকাঙ্ক্ষিত এবং অগ্রহণযোগ্য। তার একটি প্রমাণ রাবি শিক্ষার্থীদের ওপর চিকিৎসকদের বর্বরোচিত হামলা। একজন সচেতন নাগরিক হিসেবে এইসব ন্যাক্কারজনক ঘটনার তীব্র নিন্দা এবং বিচারবিভাগীয় তদন্ত দাবি করছি। এই ঘটনা অন্য সবকিছুর মতো ‘ম্যানেজড’ হলে বা ধামাচাপা পড়ে গেলে, মানবতা এবং নাগরিক অধিকার মারাত্মকভাবে নিগৃহীত হবে বলে মনে করি।’

Previous articleউল্লাপাড়ায় দুই শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার ২
Next articleসোনারগাঁয়ে গাঁজাসহ যুবক আটক
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।