দীপ্ত টিভির সংবাদ দুই সপ্তাহের জন্য বন্ধ হচ্ছে

বাংলাদেশ প্রতিবেদক: বেসরকারি টেলিভিশন দীপ্ত টিভির চারজন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ায় এটির খবর প্রচার বন্ধ হচ্ছে। আগামীকাল (শুক্রবার) থেকে দুই সপ্তাহের জন্য খবর প্রচার বন্ধ থাকবে।

বুধবার সেখানে কর্মরত একজন রিপোর্টার, একজন নিউজ এডিটর, দুজন প্রডিউসারের শরীরে করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ার পর চ্যানেলটির কর্তারা বিশেষ ব্যবস্থায় সম্প্রচার করছেন।

জানা যায়, বর্তমানে ১৫ জন দীপ্ত টিভির অফিসেই অবস্থান করছেন। তারা সেখানে ১৪ দিন অবস্থানের পর নতুন করে অন্যরা সেখানে যোগ দেবেন।

এর আগে এদিন বিকেলে দেশের একটি বেসরকারি টেলিভিশনের জেনারেল সেকশনের এক কর্মকর্তা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন। এ জন্য সংশ্লিষ্ট চ্যানেলের কয়েকজন শীর্ষ কর্মকর্তাসহ ১৫ জনকে কোয়ারেইন্টাইনে পাঠানা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৪ এপ্রিল) অপর একটি টেলিভিশনের গাজীপুর প্রতিনিধির করোনা আক্রান্ত খবর পাওয়া যায়। এর আগের দিন সোমবার দেশের আরও একজন সাংবাদিক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন। তিনি একটি টেলিভিশন চ্যানেলের নরসিংদী জেলা প্রতিনিধি।

এর আগে বেসরকারি টিভি ছাড়াও কয়েকটি দৈনিক পত্রিকার সাংবাদিক করোনায় আক্রান্ত হন। আক্রান্ত সংবাদকর্মীরা কেউ বাড়িতে এবং হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। তারা সংক্রমিত হওয়ায় আইইডিসিআরের পরামর্শে শতাধিক সাংবাদিক-কর্মচারীকে হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়।

করোনা আক্রান্তের এ সংখ্যা বাংলাদেশের গণমাধ্যমের জন্য অশনিসংকেত বলছেন সংশ্লিষ্টরা। গণমাধ্যমকর্মীদের অভিযোগ, সাংবাদিকদের স্ব স্ব মিডিয়া হাউজ থেকে স্বাস্থ্যসুরক্ষা সামগ্রী না দিয়েই অ্যাসাইনমেন্টে পাঠানো হচ্ছে। সাংবাদিকদের এমন চলাফেরা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন সাংবাদিক নেতারা।