বাংলাদেশ ডেস্ক: বিশ্ববাসীর জন্য বড় ধরনের চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসের নতুন ধরন (স্ট্রেইন)। যার প্রভাব দেখা দিয়েছে পাকিস্তানেও। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের মাঝে গতকাল দেশটিতে ১১১ জনের মৃত্যুর রেকর্ড হয়েছে। সংবাদ মাধ্যম ডন বলছে, করোনার সংক্রমণ শুরুর পর থেকে এটি দ্বিতীয় সর্বোচ্চ মৃত্যুসংখ্যা।

দেশটির ন্যাশনাল কমান্ড অ্যান্ড অপারেশন সেন্টারের তথ্যমতে, এর আগে ১৫ জুনে একদিনে ১২৪ জন মারা গিয়েছিলেন যা এখন পর্যন্ত দেশটির সর্বোচ্চ মৃত্যসংখ্যা।

গতকাল বৃহস্পতিবার আক্রান্তের সংখ্যা ২ হাজার ২৫৬ জন। দেশটি যুক্তরাজ্যে করোনার নতুন ধরনের সংক্রমণের বিষয়ে সতর্ক রয়েছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

এদিকে, দেশটির স্বাস্থ্য খাতের বর্তমান অবস্থা এক হতাশাজনক চিত্র তুলে ধরছে বলে স্বীকার করেছেন প্রধানমন্ত্রীর স্বাস্থ্যবিষয়ক বিশেষ সহকারি ফয়সাল সুলতান।

এশিয়ার অন্যান্য দেশের তুলনায় পাকিস্তানের পরিস্থিতি খারাপ বলেছে পাকিস্তান ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিস (এনএইচএস)।

সংস্থাটি তাদের বিবৃতিতে বলেছে, করোনা ভাইরাসের নতুন ধরনের সংক্রমণ শনাক্ত ও তা মোকাবিলায় এনআইএইচ সতর্ক রয়েছে। পরীক্ষা করা হচ্ছে যুক্তরাজ্য থেকে আসা সকল বিমানযাত্রীকে। দেশটির করোনা পরিস্থিতির সার্বিক বিষয়ও পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছে পাকিস্তান ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিস।

সূত্র: রয়টার্স

Previous articleকারাগার থেকে মুক্তি পেলেন সাংবাদিক কাজল
Next articleঅ্যাপলের সঙ্গে যুদ্ধ ঘোষণা, বন্ধ হতে পারে ফেসবুক!
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।