বাংলাদেশ ডেস্ক: রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিতে আগামী ২৪ জানুয়ারি পর্যন্ত জরুরি অবস্থা জারির অনুমোদন দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ২০ জানুয়ারি জো বাইডেনের শপথ ঘিরে নিরাপত্তা হুমকি থাকায় এ পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

সোমবার (১১ জানুয়ারি) হোয়াইট হাউজের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, জরুরি পরিস্থিতিতে সহায়তার জন্য কেন্দ্রীয় সংস্থাগুলোকে নির্দেশ দিয়েছেন ট্রাম্প। এই অনুমোদনের ফলে কেন্দ্রীয় ইমার্জেন্সি ম্যানেজমেন্ট এজেন্সি জরুরি পরিস্থিতির প্রভাব মূল্যায়নের মাধ্যমে তা নিরসনে পদক্ষেপ নিতে পারবে।

স্টাফফোর্ড আইনের ব্যবহারের মাধ্যমে জরুরি অবস্থা ঘোষণায় অনুমোদন দিলেন ট্রাম্প। এর মাধ্যমে জানমাল, জনস্বাস্থ্য ও নিরাপত্তা রক্ষা করা এমকি ডিস্ট্রিক্ট অব কলম্বিয়ায় বিপর্যয়কর হুমকি এড়ানো কিংবা সর্বনিম্ন পর্যায়ে কমিয়ে আনার লক্ষ্যে ব্যবস্থা নিতে পারবে সংস্থাগুলো। ইতিমধ্যে মার্কিন আইনসভার আশপাশের এলাকাজুড়ে জাতীয় নিরাপত্তা রক্ষীদের উপস্থিতি চোখে পড়ার মতো।

ট্রাম্প সমর্থকদের সমাবেশের সম্ভাব্য পরিকল্পনা:

নবনির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের শপথকে সামনে রেখে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সশস্ত্র সমর্থকরা নৈরাজ্য সৃষ্টি করতে পারে, এমন শঙ্কা জানিয়ে সতর্ক করেছে মার্কিন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা- এফবিআই। নিরাপত্তা বিভাগ সতর্ক করে জানায়, তারা অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে লঙ্কাকাণ্ড ঘটাতে পারে।

গত (৬ ডিসেম্বের) বুধবার ক্যাপিটল হিলে নজিরবিহীন হামলা চালায় ট্রাম্পের একদল সমর্থক। এ ঘটনার পরই বিশ্বে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু যুক্তরাষ্ট্র। বিশেষ করে আগামী ২০ জানুয়ারি জো বাইডেনের শপথ গ্রহণে কি হতে চলছে, এ নিয়ে জল্পনা-কল্পনার শেষ নেই। পরিস্থিতি কোন দিকে গড়াচ্ছে তা বোঝা মুশকিল হলেও সহিংসতার আশঙ্কা উড়িয়ে দিচ্ছে না নিরাপত্তা বাহিনী।

এফবিআই সতর্কবার্তায় অনুযায়ী, ট্রাম্পের উগ্র সমথর্করা যুক্তরাষ্ট্রের ৫০টি অঙ্গরাজ্যের ক্যাপিটলসহ রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসির ক্যাপিটল হিলে জড়ো হওয়ার ব্যাপক পরিকল্পনা সাজাচ্ছে। মূলত বাইডেনের শপথ নেয়াকে টার্গেট করেই তাদের প্রস্তুতি।

ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসির তথ্যমতে, আগামী ১৭ জানুয়ারিসহ বেশ কয়েকটি তারিখে ওয়াশিংটন ডিসিতে গোপনীয়ভাবে সমাবেশের ডাক দেয়া হয়েছে। ট্রাম্পপন্থী ও বিভিন্ন ডানপন্থী অনলাইন গ্রুপে পোস্ট করে সশস্ত্র বিক্ষোভের আহ্বানের প্রমাণ পাওয়া গেছে। শপথের দিনও একই ধরনের জনসমাবেশ আয়োজনের ইঙ্গিত করা হয়েছে।

এফবিআই আরো জানায়, ট্রাম্পকে অভিশংসিত করা হলে মার্কিন ফেডারেলসহ স্থানীয় আদালতে তাণ্ডব চালাতে পারে ট্রাম্প সমর্থকদের একাংশ। বিশেষ করে আগামী ১৬-২০ তারিখে ৫০টি রাজ্যে বিশৃঙ্খলা চালানোর আভাস পেয়েছে গোয়েন্দা সংস্থা। আগামী (১৩ ডিসেম্বর) বুধবার প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে অভিশংসনের ডাক দিয়ে ভোটাভুটির আয়োজন করতে যাচ্ছে ডেমোক্র্যাটরা। ট্রাম্পকে ক্ষমতা থেকে সরিয়ে দিতে মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সকে চাপ দিলেও তাতে সায় দেননি তিনি।