বাংলাদেশ ডেস্ক: মাত্র ২৪ ঘণ্টার টানা বৃষ্টিতে সৃষ্ট জলাবদ্ধতায় মালয়েশিয়াতে স্মরণকালের সবচেয়ে ভয়াবহ বন্যার সৃষ্টি হয়েছে। পাহাড় জঙ্গল ঘেরা এ দেশটিতে এখন পর্যন্ত ১৪ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। তবে বন্যার পানি অধিকাংশ প্রদেশ থেকে সরে গেছে। তবে কিছু অঞ্চলের জলাবদ্ধতা এখনো কমেনি। স্বরণকালের ভয়াবহ এ বন্যায় পানিবন্দী হয়ে পড়া প্রায় ৭০ হাজার বাসিন্দাকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিয়েছে দেশটির জাতীয় দুর্যোগ ব্যাবস্থাপনা কর্মকর্তারা। মঙ্গলবার এমন সংবাদ প্রকাশ করেছে মালয়েশিয়ার গণমাধ্যমগুলো।

মঙ্গলবার মালয়েশিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা বারনামার তথ্যে জানা গেছে, ১৭ ডিসেম্বরে দেশটির ১৩ প্রদেশের মধ্যে ৯ প্রদেশেই ভয়াবহ বন্যা হয়েছিল। যোগাযোগ ব্যবস্থা ও সাধারণ জনগণের স্বাভাবিক জীবনযাত্রা ব্যাহত হয়েছিল। তবে এখন বেশ কয়েকটি প্রদেশ থেকে বন্যার পানি সরে গেলেও কিছু প্রদেশ এখনো পানিবন্দী আছে। পাহাং প্রদেশের পানি এখনো না সরায় লোকজন তাদের বাড়ি-ঘরে ফিরতে পারছেন না।

অন্যন্যা প্রদেশের মধ্যে রাজধানী কুয়ালালামপুর ও সেলাঙ্গর প্রদেশে বন্যায় ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। অর্থনীতি বিশেষজ্ঞরা পরামর্শ দিয়েছেন ক্ষতিগ্রস্ত লোকদের দ্রুত পুর্নবাসন করার জন্য। এদিকে রাজধানী কুয়ালালামপুর ও গুরত্বপূর্ণ সেলাঙ্গর রাজ্যে আটটি মৃতদেহ পাওয়া গেছে, পাহাং-এ মৃতের সংখ্যা ছিল ছয়জন এবং বেন্টং প্রদেশে বন্যায় আরো চারজন এখনো নিখোঁজ রয়েছে বলে জানা গেছে।

Previous articleশিক্ষার্থী নির্যাতনকারী ছাত্রলীগ নেতা সিফাতকে ঢাবি থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার
Next articleব্যাপক ভোটে কলকাতা দখল মমতার তৃণমূলের, বিজেপির থেকে বেশি ভোট পেল বামেরা
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।