বাংলাদেশ ডেস্ক: ইউরোপীয় ইউনিয়নের কালো তালিকাভুক্ত রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের দুই কন্যার ওপরও নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে ইইউ। এছাড়া ইইউ’র সর্বশেষ এই নিষেধাজ্ঞায় আরো দুই শ’ লোককে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে।

ইউক্রেনে রুশ হামলার কারণে এ নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়।

শুক্রবার অফিশিয়াল তালিকা থেকে এ কথা জানা গেছে।

তালিকায় অতিরিক্ত ১৮ কোম্পানীর নাম অন্তর্ভূক্ত করা হয়। ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত ২৭ দেশে এসব ব্যক্তি ও কোম্পানীর সম্পদ জব্দ এবং ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা থাকবে।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রিটেন আগেই পুতিনের দুই কন্যার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে।

পুতিনের এই দুই মেয়ের নাম মারিয়া ভরোন্তোসভা ও ক্যাটেরিনা টিখোনোভা। রুশ প্রেসিডেন্টের সাবেক স্ত্রী লুদমিলা শেকরেবনেভার গর্ভজাত সন্তান তারা। লুদমিলার সাথে পুতিনের ২০১৩ সালে বিয়ে বিচ্ছেদ ঘটে।

মার্কিন অর্থবিভাগ ক্যাটেরিনা টিখোনোভাকে একজন প্রযুক্তি এক্সিকিউটিভ হিসেবে চিহ্নিত করেছে। তার কাজকর্ম রাশিয়ার প্রতিরক্ষা শিল্পের জন্য সহায়ক।

মারিয়া ভরোন্তোসভা রাষ্ট্রের অর্থায়নে পরিচালিত জেনেটিক রিসার্চ প্রোগ্রামে কাজ করেন। এটি ব্যক্তিগতভাবে পুতিন তত্ত্বাবধান করেন।

এদিকে ইইউ’র সর্বশেষ এই নিষেধাজ্ঞায় পুতিনের বংশধরসহ মোট ২১৭ জনকে অন্তর্ভূক্ত করা হয়। এ নিয়ে মোট এক হাজার ৯১ জনের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে ইইউ।

ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্র নীতি বিষয়ক প্রধান জোসেপ বোরেল এক বিবৃতিতে বলেছেন, আমরা আমাদের অবরোধের তালিকা আবারো জোরদার করেছি। রাজনীতি এবং ব্যবসায়িক ক্ষেত্রের আরো লোককে অন্তর্ভূক্ত করেছি।

তিনি আরো বলেন, ইউক্রেনে পুতিনের যুদ্ধে সমর্থনকারী রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক এলিটদের আমরা লক্ষ্যবস্তু করেছি।

ইউক্রেনে কাণ্ডজ্ঞানহীন ও অমানবিক আগ্রাসন বন্ধ করাই আমাদের এসব পদক্ষেপের লক্ষ্য।

Previous articleসাকিবের শাশুড়ি আর নেই
Next articleমিথ্যা মামলা দিয়ে আ.লীগ একতরফা নির্বাচন করতে চায়: ফখরুল
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।