বাংলাদেশ ডেস্ক: ইউক্রেনে অস্ত্র সরবরাহ ও যুদ্ধে সহায়তার জন্য নতুন করে ৩৩ বিলিয়ন ডলারের প্যাকেজ প্রস্তাব করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। তিনি বলেছেন, যুদ্ধ তৃতীয় মাসে গড়ানোর কারণে রাশিয়া পরাজয় স্বীকার করা ছাড়া পশ্চিমাদের কাছে আর কোনো বিকল্প নেই।

বৃহস্পতিবার হোয়াইট হাউসে বক্তৃতায় বাইডেন রাশিয়ার আগ্রাসনে ইউক্রেনের ক্ষতিপূরণের জন্য অভূতপূর্ব নিষেধাজ্ঞার অধীনে রাজনীতিতে প্রভাবশালী রাশিয়ার ধনকুবদের কাছ থেকে ছিনিয়ে নেয়া বিলাস বহুল সম্পদ ব্যবহার করার অনুমতি দেয়ার জন্য প্রস্তাবিত আইনের রূপরেখাও তুলে ধরেন।

বাইডেন স্বীকার করেন, ইউক্রেনকে সমর্থন দিতে যুক্তরাষ্ট্রের বিপুল ব্যয় বহন করতে হচ্ছে, কিন্তু রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সাথে লড়াই করার আসলে কোনো ইচ্ছে নেই তার। এই লড়াইয়ের খরচ সস্তা নয়। তবে আগ্রাসনের দিকে ঝুঁকে পড়া আরো ব্যয়বহুল হবে যদি আমরা সেটি ঘটতে দেই।

বৃহৎ সেনাবাহিনী ও ভারী অস্ত্রের হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত ইউক্রেনে মার্কিন সহযোগিতার মাত্রা বেড়েই চলেছে। বাইডেন নিশ্চিত করেন ইউক্রেনে পাঠানো প্রতিটি রাশিয়ান ট্যাঙ্কের বিপরীতে ইতোমধ্যে ১০টি করে ট্যাঙ্ক বিধ্বংসী অস্ত্র সরবরাহ করা হয়েছে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট আরো বলেন, আমরা রাশিয়াকে আক্রমণ করছি না। আমরা ইউক্রেনকে রাশিয়ার আগ্রাসনের বিরুদ্ধে আত্মরক্ষা করতে সহায়তা করছি। রুশ পারমাণবিক যুদ্ধের আশঙ্কার প্রসঙ্গ টেনে বাইডেন এটিকে ‘মস্কোর হতাশার লক্ষণ’ উল্লেখ করে বলেন, পারমাণবিক অস্ত্রের ব্যবহার বা এটি ব্যবহারের সম্ভাবনা সম্পর্কে অলস মন্তব্য করা উচিত নয়, এটা কাণ্ডজ্ঞানহীন কাজ।

Previous articleবাংলাদেশকে ফাইজারের আরো ৩০ লাখ টিকা দিলো যুক্তরাষ্ট্র
Next articleহাসপাতালের বেডে শুয়ে ইউক্রেনীয় বৃদ্ধের ইসলাম গ্রহণ
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।