বাংলাদেশ প্রতিবেদক: করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে চলমান বিধিনিষেধের মধ্যে ভার্চুয়ালি শুনানি করে এখন পর্যন্ত ৩৮ কার্যদিবসে সারা দেশের নিম্ন আদালত ও ট্রাইব্যুনালে ৬০ হাজার ৪৮৯ জন আসামি জামিন পেয়ে কারামুক্ত হয়েছেন। বুধবার (০৯ জুন) সুপ্রিমকোর্টের মুখপাত্র মোহাম্মদ সাইফুর রহমান এ তথ্য জানিয়েছেন

তিনি বলেন, গত ১২ এপ্রিল হতে গতকাল ৮ জুন পর্যন্ত মোট ৩৮ কার্য দিবসে সারা দেশে অধঃস্তন আদালত এবং ট্রাইব্যুনালে ১ লাখ ১৭ হাজার ৬৯১টি মামলায় জামিনের দরখাস্ত ভার্চুয়াল শুনানির মাধ্যমে নিষ্পত্তি হয় এবং মোট ৬০ হাজার ৪৮৯ জন জামিন পেয়ে কারাগার মুক্ত হয়েছেন। এরমধ্যে এই ৩৮ কার্যদিবসে ভার্চুয়াল আদালতের মাধ্যমে মোট জামিন প্রাপ্ত শিশুর সংখ্যা ৯৭৪ জন।

সুপ্রিমকোর্ট মুখপাত্র বলেন, গতকাল ৮ জুন সারা দেশে অধঃস্তন আদালত এবং ট্রাইব্যুনালে ২ হাজার ৬৩৮টি ফৌজদারি মামলায় ভার্চুয়াল শুনানিতে জামিন-দরখাস্ত নিষ্পত্তি হয় এবং ১ হাজার ২৩৫ জন হাজতী জামিন প্রাপ্ত হয়ে কারাগার হতে মুক্ত হয়েছেন।

করোনাভাইরাস মহামারি জনিত সংক্রমণ এড়াতে শারীরিক উপস্থিতি ব্যতিরেকে তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহার করে ভার্চুয়াল উপস্থিতিতে বিচার কার্যক্রম পরিচালনা শুরু হয়। এজন্য তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার আইন-২০২০ প্রণয়ন করে সরকার এবং সুপ্রিমকোর্ট প্র্যাকটিশ ডাইরেকশন জারি করে। সে আলোকে ২০২০ সালের মে মাসে প্রথম দফায় অধঃস্তন আদালতে ভার্চুয়াল উপস্থিতিতে বিচার কার্যক্রম শুরু হয়। পরে করোনা সংক্রমণ কিছুটা উন্নতি হলে স্বাভাবিক বিচার কার্যক্রম পরিচালনা শুরু হয়।

চলতি বছরের মার্চ মাসে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় ফের ভার্চুয়াল উপস্থিতিতে বিচার কার্যক্রম পরিচালনা শুরু হয়। এরপর থাকে দ্বিতীয় দফায় টানা ৩৮ কার্য দিবস ভার্চুয়ালি বিচার কার্যক্রম চলছে। পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত এ কার্যক্রম চলবে বলে জানায় সুপ্রিমকোর্ট প্রশাসন।

Previous articleজাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক শ্রেণিতে ভর্তি কার্যক্রম স্থগিত
Next articleবিনা খরচে ভিসা এবং আকামার মেয়াদ বৃদ্ধি করবে সৌদি
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।