বাংলাদেশ প্রতিবেদক: করোনাকালে দেশে ফেরা প্রবাসীদের হতাশ না হয়ে দেশেই আত্মকর্মসংস্থানে নিয়োজিত হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বুধবার (৬ জানুয়ারি) সকালে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে তিনি এ কথা বলেন। অন্ধের মতো বিদেশে না ছুটে, দক্ষ হয়ে যাচাই-বাছাইয়ের মাধ্যমে প্রবাসীদের বিদেশ যাওয়ার পরামর্শ দেন সরকারপ্রধান।

কোভিড ১৯-এর আতঙ্কে বিপর্যস্ত বিশ্বে প্রভাব পড়া অন্যতম প্রধান খাত অভিবাসী। যার মধ্যে বিভিন্ন দেশে প্রায় ৮০ লাখ বাংলাদেশি অভিবাসীর অবস্থানও পড়েছে সংকটে। গত বছরের ১ এপ্রিল থেকে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত দেশে ফিরে আসা প্রবাসীদের এ সংখ্যাটি ৩ লাখ ২৬ হাজার ৭৫৮ জন।

বেশির ভাগ কর্মী ফিরেছেন করোনাকালে কাজ হারিয়ে। কেউ কেউ ছুটিতে এসে আর যেতে পারছেন না। কেউবা আবার বৈধতা না থাকায় ফিরতে হয়েছে। সমস্যা হলো, এই বিপুলসংখ্যক কর্মীর আবার বিদেশ যাওয়ার সুযোগও খুব সীমিত হয়ে পড়েছে।

এমন পরিস্থিতিতে বুধবার ‘মুজিব বর্ষের আহ্বান দক্ষ হয়ে বিদেশ যান’ স্লোগান নিয়ে দেশে পালিত হলো আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস-২০২০। রাজধানী বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত এ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এ সময় সরকার প্রধান দেশে পর্যাপ্ত কর্মসংস্থান এমনকি আত্মকর্মসংস্থানের সুযোগ আছে জানিয়ে প্রবাসী কর্মীদের হতাশ না হওয়ার আহ্বান জানান।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে অনেক জায়গায়ই স্থবির হয়ে গেছে। ফলে করোনাকালে অনেকই কাজ হারাচ্ছেন। যারা দেশে ফিরে এসেছেন, তাদের প্রণোদনা দিচ্ছি, তারা চাইলে কাজ করতে পারবে। কাজেই হতাশ না হয়ে দেশেই কাজ করেন।

আওয়ামী সরকার অভিবাসীদের কল্যাণে প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, ব্যাংক ঋণ দেওয়া ছাড়াও সহায়তার নানা ব্যবস্থা করেছে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা প্রত্যেকে কর্মীকে দক্ষ হয়ে বিদেশে যাওয়ার নির্দেশ দেন।

সরকারপ্রধান বলেন, আওয়ামী লীগ যখন সরকারে আসে, তখন থেকেই প্রবাসীদের কল্যাণে আমরা কাজ করছি। পাশাপাশি দেশের ভেতরেও কর্মসংস্থানের ব্যাপক সুযোগ সৃষ্টি করেছি। বিদেশ গিয়ে কে কি কাজ করবেন, সে ধরনের সব বিষয়ে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থাও আমরা করেছি। যাতে বিদেশে গিয়ে তাদের কাজের ক্ষেত্রে সমস্যা না হয়।

এর আগে অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে প্রবাসী কর্মী সন্তানদের শিক্ষা বৃত্তি চেক, সিআইপি ক্রেস্ট ও সনদ তুলে দেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইমরান আহমেদ।