বাংলাদেশ প্রতিবেদক: পদ্মা সেতু প্রকল্পের মেয়াদ এক বছর বাড়লেও উদ্বোধন করা হবে ২০২২ সালের জুনেই। আর এ মেয়াদ বাড়ার কারণে বাড়বে না খরচও। প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা বলছেন, প্রকল্পের বাস্তব কাজ আগের বেঁধে দেয়া ২০২২-এর জুনেই শেষ হবে। তবে ভুল-ত্রুটি সংশোধনের সময়সহ প্রকল্পের মেয়াদ জুন ২০২৩ পর্যন্ত বাড়ানোর আবেদন করা হয়েছে। সেতু বিভাগের সচিব বলছেন, করোনার কারণেই বাড়ানো হয়েছে প্রকল্পের মেয়াদ।

প্রমত্তা পদ্মার বুক চিরে স্বপ্ন আজ দৃশ্যমান। প্রকল্পের সার্বিক কাজ এরই মধ্যে ৮৩ ভাগ শেষ। সড়কপথের ২৯১৭টি রোড ডেকের মধ্যে এরই মধ্যে ২ হাজার ১০০টি বসানো শেষ। রেলের ২ হাজার ৯৫৯ মধ্যে ২ হাজার ৩০০টি বসানো শেষ। এ অবস্থা চলতে থাকলে মূল সেতু ২০২২-এর মার্চ আর পুরো প্রকল্পের কাজ শেষ হবে জুনে।

এতে স্বাভাবিকভাবেই ধরে নেয়া হয়েছিল পূর্বনির্ধারিত চলতি বছরের ৩০ জুন থেকে বাড়ানো হবে পদ্মা বহুমুখী পদ্মা সেতু নির্মাণের প্রকল্পের মেয়াদ। আর তাই প্রকল্পের মেয়াদ বাড়াতে সংশ্লিষ্ট দফতরে চিঠি দিয়েছে সেতু বিভাগ। এতে ব্যয় না বাড়িয়ে এক বছর ও ডিফেক্ট নটিফিকেশন পিরিয়ডসহ আরো এক বছর অর্থাৎ জুন ২০২৩ পর্যন্ত প্রকল্পের মেয়াদ বাড়ানোর প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। আর কারণ হিসেবে দেখানো হয় করোনা মহামারির প্রভাব। তবে সেতুর সার্বিক কাজ ২২ জুনেই শেষ হবে বলে আশাবাদ কর্তৃপক্ষের।

সেক্ষেত্রে মোট ব্যয় না বাড়লেও আন্তঃসমন্বয়ের জন্য তা একনেক সভায় তোলা হবে বলে জানান সচিব মো. বেলায়েত হোসেন।

গত ডিসেম্বরে শেষ স্প্যান বসানোর মধ্য দিয়ে পদ্মা সেতু যুক্ত করে মাওয়া ও জাজিরা প্রান্ত।

Previous articleকুইন্সটাউনে টাইগার দল, বৃহস্পতিবার অনুশীলন শুরু
Next articleপবিত্র শবে মিরাজ বৃহস্পতিবার
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।