বাংলাদেশ প্রতিবেদক: দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়তে থাকায় সরকার ‘কিছুটা চিন্তিত’ বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। এছাড়া আগামী জুলাই মাসের শেষ সপ্তাহে ৫ থেকে ১২ বছর বয়সি শিশুদের করোনাভাইরাসের টিকাদান কার্যক্রম শুরু হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

তিনি বলেছেন, করোনা এখন ঊর্ধ্বমুখী। এতে সরকার কিছুটা চিন্তিত। তবে তিনি বলেন, স্বাস্থ্য বিভাগ এ নিয়ে শঙ্কিত নয়।

মন্ত্রী বলেন, আমরা প্রস্তুত আছি। আমাদের হাসপাতালের উন্নয়ন চলমান আছে। হাসপাতালে এখন তেমন রোগী নাই। রোগী এলে চিকিৎসা দেয়ার মতো সক্ষমতা ও প্রস্তুতি আছে।

বুধবার ঢাকায় এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, জুলাই মাসের মাঝামাঝি শিশুদের টিকা পেলে ওই মাসের শেষে ভ্যাকসিন কার্যক্রম শুরু করতে পারব।

তিনি আরো বলেন, এই টিকাদান কার্যক্রম চালাতে যে ধরনের ডকুমেন্টেশন প্রয়োজন, আশা করি তা আমরা এই সময়ের মধ্যে শেষ করতে পারব।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক এবং ন্যাশনাল ভ্যাকসিন ডেপ্লয়মেন্ট কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ডা: মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা সোমবার জানিয়েছিলেন, ১২ বছরের কমবয়সীদের ফাইজারের টিকা দেয়ার পরিকল্পনা করেছেন তারা।

স্বাস্থ্য অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, টিকা নেয়ার জন্য ৫ থেকে ১২ বছর বয়সি এই শিশুদের জন্ম নিবন্ধন সনদের নম্বর দিয়ে সুরক্ষা অ্যাপে নিবন্ধন করতে হবে।

শিশুদের টিকা দেয়ার উপযোগী করে তৈরি করা পয়েন্ট টু এমএলের সিরিঞ্জ প্রয়োজন, যা এখনো দেশে এসে পৌঁছায়নি।

Previous articleঈশ্বরদীর পদ্মার চরে বাদাম চাষ, যেন বালুর নিচে লুকানো সোনা
Next articleবাবার কোলে শিশুকে গুলি করে হত্যা, আরেক আসামি গ্রেপ্তার
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।