মিজানুর রহমান বুলেট: বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট হওয়া নিম্নচাপের কারনে উত্তাল হয়ে ছিল গত কয়েকদিন যার ফলে গভীর সমুদ্রে অবস্থানরত মাছ ধরার বিভিন্ন জেলা থেকে আসা শতশত ট্রলার মহিপুর-আলীপুর মৎস্য বন্দরে আশ্রয় নেয়। ট্রলারের অনেকেই সমুদ্রে ফিরছে রূপালী ইলিশের শিকারের জন্য ।

বৃহস্পতিবার ( ১৫ সেপ্টেম্বর) মৎস্য বন্দর মহিপুর-আলীপুর ঘুরে দেখা যায়, অনেক গুলো ট্রলার ভোররাত থেকেই সমুদ্রে যাচ্ছে ইলিশের সন্ধানে আবার অনেক ট্রলার অপেক্ষা করছে কখন আবহাওয়া পুরোপুরি ভালো হবে।

মহিপুরের এফবি মায়ের দোয়া ট্রলারের মাঝি আলাউদ্দিন বলেন, সকাল থেকে অনেক ট্রলার সমুদ্রে গেছে আমরা বরফ নিয়েছি একটু পরে বাজার নিয়ে বের হবো।কিন্তু আমরা সাগরে অনেক ঝুঁকির মধ্যে থাকি যদি আমাদের জিপিএস সিস্টেম থাকতে তাহলে আবহাওয়া খারাপ হলে আমরা জানতে পারতাম। জলদস্যুদের আক্রমণ থেকে রক্ষা পেতাম ওরা আমাদের আক্রমণ করার সাথে সাথে অন্য জেলে ভাইদের সতর্ক করতে পারতাম।

মহিপুর মৎস্য আড়তদার সমিতির সাধারণ সম্পাদক রাজু আহম্মেদ রাজা জানান, আবহাওয়া মোটামুটি ভালো হওয়ার কারনে অনেকে ট্রলার সমুদ্রে মাছ শিকারে যাচ্ছে তবে স্টাফ, সরঞ্জামাদির সমস্যা থাকার কারনে অনেকে নামতে পারছে না। দুইএকদিনের মধ্যে সবাই মাছ শিকারে যাবে।

জেলা আবহাওয়া পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাহবুবা সুখী জানান, আজকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত জেলায় ৩০ মিলিমিটারে বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। সমুদ্রবন্দর সমূহকে তিন নম্বর সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। তবে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্টি হওয়া নিম্নচাপটি ধীরে ধীরে দূর্বল হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আগামী ২৪ ঘন্টা বা ৭২ ঘন্টার মধ্যে সতর্ক সংকেত নামিয়ে নেয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

Previous articleমুন্সীগঞ্জে তিনটি ডাকাতির ঘটনায় জড়িত ১১ ডাকাত আটক, পুলিশ সুপারের সংবাদ
Next articleখালেদা ও তারেক আইনের দৃষ্টিতে নির্বাচনের অযোগ্য: ওবায়দুল কাদের
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।