চট্টগ্রামে হত্যা মামলার পলাতক আসামি নিয়ে ছাত্রলীগের মিছিল

বাংলাদেশ প্রতিবেদক: চট্টগ্রাম বন্দরে কর্মচারী নিয়োগে চট্টগ্রাম অঞ্চলের মানুষকে অগ্রাধিকার দেওয়ার দাবিতে বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) মিছিল ও সমাবেশ করে মহানগর ছাত্রলীগ। আর সেই মিছিলের অগ্রভাগে ছিলেন আকবরশাহ এলাকায় শহিদুর রহমান রনি হত্যা মামলার অন্যতম আসামি আকবরশাহ থানা ছাত্রলীগের সভাপতি জুয়েল সিদ্দিকী। প্রশাসনের নাকের ডগায় এই হত্যা মামলার আসামি ঘুরলেও তাকে গ্রেফতার করছে না পুলিশ। অপরদিকে মিছিলের নেতৃত্বে ছিলেন নগর ছাত্রলীগ সভাপতি ইমরান আহমেদ ইমু ও সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া দস্তগীর।
এদিকে মামলার প্রধান আসামী জুয়েল সিদ্দিকী প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়ালেও পুলিশ গ্রেফতার করছে না বলে সংবাদ সম্মেলন করেছেন নিহত শহিদুর রহমান রনির পরিবার। এতে পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়, মামলাটি তুলে নিতে বিভিন্ন মহল থেকে হুমকি এবং ছাত্রলীগ নেতারা গুম করার হুমকি দিচ্ছে। এতে প্রাণের ভয়ে বাসা ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে পরিবারটি।
গত ২৮ জুলাই উত্তর কাট্টলীর আমানত উল্লাহ শাহ পাড়ায় ছোট বোনকে কুপ্রস্তাব দেওয়ার প্রতিবাদ করায় বখাটের হামলায় খুন হন বড় ভাই শহিদুর রহমান রনি। এ ঘটনায় নিহতের বোন রেশমী আক্তার বাদী হয়ে জুয়েলসহ আরও তিন জনের নামে নগরীর আকবরশাহ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় আসামিদের নামে গ্রেফতারি পরোয়ানা থাকলেও তাদের অজ্ঞাত কারণে গ্রেফতার করেনি পুলিশ।
আকবরশাহ থানা ছাত্রলীগের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক নেতা জানান, ‘পারিবারিকভাবে বিএনপির রাজনীতি করলেও মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া দস্তগীরের খালাতো ভাই হিসেবে পরিচিত জুয়েল সিদ্দিকীকে অনেকটা জোর জবরদস্তি করে সভাপতির পদ দেওয়া হয়েছে। জুয়েলের বড় ভাই ১০ নং ওয়ার্ড যুবদলের সহ-দপ্তর সম্পাদক এবং বিএনপির ডাকা হরতালের সময় নাশকতাসহ কয়েকটি মামলার আসামি।’