বাংলাদেশ প্রতিবেদক: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠানমালা পণ্ড করতে শুক্রবার (২৬ মার্চ) ঢাকা, চট্টগ্রাম ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় একটি সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী যে তাণ্ডবলীলা চালিয়েছে, বিএনপি তার পৃষ্ঠপোষক।

তিনি বলেন, সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠান সফলভাব সম্পন্ন হওয়ায় বিএনপির গাত্রদাহ হচ্ছে।

শনিবার (২৭ মার্চ) সকালে তার সরকারি বাসভবনে ব্রিফিংকালে এসব কথা বলেন ওবায়দুল কাদের।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, শুক্রবার জুমার নামাজের সময় জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের ভেতরে সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী যে তাণ্ডবলীলা চালায়, এই ধৃষ্টতার জবাব জনগণ অবশ্যই দিবে।

ক্ষমতার পরিবর্তন বিষয়ে বিএনপি নেতাদের বক্তব্য প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, ক্ষমতার পরিবর্তন কেবলমাত্র নির্বাচনের মাধ্যমেই হবে, তাই আগামী নির্বাচন পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে এসে বিএনপির স্বাধীনতার চেতনা ও মূল্যবোধের প্রতি সম্মান, শ্রদ্ধা প্রদর্শন দায়সারা এবং লোক দেখানো আনুষ্ঠানিকতা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘তারা মুখে স্বাধীনতার কথা বললেও স্বাধীনতা বিরোধী সাম্প্রদায়িক অপশক্তির পৃষ্ঠপোষকতা অব্যাহত রেখেছে।’

বিএনপি ষড়যন্ত্র ও চোরাগলির রাজনীতি গত চার দশকের বেশি সময় ধরে চর্চা করে আসছে এবং উত্তরাধিকার বহন করে চলছে বলেও মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের।

প্রতিবেশীসহ সব দেশের সঙ্গে বিএনপি বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রাখতে চায়, – বিএনপি নেতাদের এমন কথা শুনলে হাসি পায় উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রয়াত প্রণব মুখার্জির ঢাকা সফরকালে হরতাল আহবান এবং বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সাক্ষাৎ না করার অসৌজন্যতা ভারতের জনগণ নিশ্চয়ই ভুলে যায়নি।

গত কয়েকদিন ধরে বিএনপি তার দোসরদের দিয়ে যে ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়েছে তা দেশের জনগণ প্রত্যক্ষ করেছে। অথচ বিএনপিই মোদি সরকারের বিজয়ের পর আনন্দে ফুল আর মিষ্টি নিয়ে দূতাবাসের দরজায় পৌঁছানোর প্রতিযোগিতায় অবতীর্ণ হয়েছিল।

ক্ষমতার জন্য সময়ে ভারত বিরোধিতা আর সময়ে ভারত প্রীতি বিএনপির রাজনীতির দ্বি-চারিতাকেই স্পষ্ট করে বলে জানান আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

তিনি এ অপরাজনীতি বিএনপিকে ক্রমশ জনবিচ্ছিন্ন করে তুলছে বলে মনে করেন।

ক্ষমতার মোহ বিএনপিকে অন্ধ করে রাখছে। ভারতের সরকার প্রধানের সফরের বিরোধিতার আড়ালে তারা মুক্তিযুদ্ধের সুবর্ণজয়ন্তীর বিরোধিতাই করছে উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি অবস্থান নিয়েছে ৫০ বছর আগের পরাজিত শক্তির পক্ষে।

সরকার বিরোধিতার আড়ালে বিএনপি রাষ্ট্রের মর্যাদা বিনষ্টের অপচেষ্টায় লিপ্ত বলে জানান সেতুমন্ত্রী।

বিএনপি নেতাদের পরামর্শ দিয়ে তিনি বলেন, ক্ষমতা পেতে হলে জনগণের জন্য রাজনীতি করুন। ষড়যন্ত্রের রাজনীতি ক্ষণিকের। কিন্তু জনগণের ভালোবাসা এবং আস্থা অর্জনের রাজনীতি চিরকালের।

ওবায়দুল কাদের মনে করেন, বঙ্গবন্ধু এমন রাজনীতিই করে গেছেন, যার ধারাবাহিকতায় মানুষের আস্থার ঠিকানায় পরিণত হয়েছেন তাঁরই কন্যা শেখ হাসিনা।

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের রাজশাহীর মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় একই পরিবারের ১৩ জনসহ মোট ১৭ জনের নিহতের ঘটনায় গভীর দুঃখ প্রকাশ এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

তিনি এই ঘটনায় ৭ দিনের মধ্যে নিরপেক্ষ তদন্তের মাধ্যমে প্রতিবেদন প্রদানের জন্য বিআরটিএ’র চেয়ারম্যানকে নির্দেশনা দিয়েছেন।

Previous articleবাংলাদেশে ফেসবুকের সেবা সীমিত করে দেওয়ার ঘটনায় উদ্বিগ্ন ফেসবুক
Next articleস্বাধীনতার সূবর্ণজয়ন্তীতে ঈশ্বরদীতে গ্রামবাংলার ঐতিহ্যবাহী লাঠি খেলা অনুষ্ঠিত
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।