বাংলাদেশ প্রতিবেদক: দেশকে গুম-খুন থেকে রক্ষা করতে হলে আগে বর্তমান সরকারের হাত থেকে দেশকে মুক্ত করতে হবে মন্তব্য করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, সামনে যদি নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকার না হয়, এদেশে সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না। বিএনপিসহ অন্যান্য দল নির্বাচনে যাবে না। এখানে সংলাপের কোনো প্রশ্নই আসে না।

বুধবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে স্বাধীনতা ফোরাম আয়োজিত ‘মহান জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস’ উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

খন্দকার মোশাররফ বলেন, আজ যে সরকার, তাদের অধীনে কোনো পরিবর্তনই সম্ভব না। গণতন্ত্র হত্যার জন্য তারাই দায়ী। তারা মানুষের ভোটের অধিকার হত্যা করে গায়ের জোরে ক্ষমতায় আছে। তারা মানুষের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দেবে না। দেশের মানুষের সামনে এখন একটাই চ্যালেঞ্জ, সেটা হলো গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনা। এই সরকারকে ক্ষমতায় রেখে তা সম্ভব না। এজন্য প্রয়োজন জাতীয় ঐক্য।

সরকারকে উদ্দেশ্য করে বিএনপির নীতিনির্ধারক বলেন, গত নির্বাচনে তারেক রহমান বিদেশে, বেগম জিয়া জেলে। তবুও আমরা নির্বাচনে গিয়েছিলাম। আপনাদের সাহস তখন কোথায় ছিল? দিনের বেলা মানুষকে ভোট দিতে না দিয়ে আপনারা রাতের আঁধারে ভোট ডাকাতি করেন।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা বলে বিএনপি নেই, অথচ বিএনপিকে নিয়ে কথা না বললে তাদের সকাল শুরু হয় না। নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকার না হলে আমরা নির্বাচনে যাবো না। এই সরকার থাকলে তা হবে না, ফলে আমাদের আন্দোলনে যেতে হবে।

আলোচনা সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন স্বাধীনতা ফোরামের সভাপতি আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহ’র সভাপতিত্বে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, এলডিপির (একাংশ) মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম প্রমুখ।

Previous articleনওগাঁয় স্বতন্ত্র প্রার্থী-কর্মীদের মোটরসাইকেল ভাংচুরের অভিযোগ
Next articleকানাইঘাট সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে ২ বাংলাদেশী নিহত
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।