বাংলাদেশ প্রতিবেদক: বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, মুক্তিযুদ্ধের ঘোষণা দিয়ে জিয়াউর রহমান সমগ্র জাতিকে অনুপ্রাণিত করেছিলেন। সেই মানুষটিকে আজ ইতিহাস থেকে মুছে দেয়ার চেষ্টা চলছে। খুব সচেতনভাবেই কাজটি করা হচ্ছে।

শুক্রবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে বিএনপি আয়োজিত রচনা প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করার জন্য এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে ১৯৭৪ দুর্ভিক্ষের প্রসঙ্গ টেনে ফখরুল বলেন, তারপরই আমরা দেখলাম সেই অবস্থান থেকে জিয়াউর রহমান অলৌকিক শক্তি নিয়ে সবকিছু পাল্টে দিয়েছেন। একবছর পরেই খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়েছে দেশ। এমন কোন জায়গা নাই ; যেখানে তিনি হাত দিয়ে পরিবর্তন করেন নাই।

বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও প্রেসিডেন্ট জিয়াসহ ১২টি বিষয়ে রচনা প্রতিযোগিতা হয় জানিয়ে ফখরুল বলেন, বিএনপি মুক্তিযোদ্ধার দল। স্বাধীনতার সঠিক ইতিহাস তুলে ধরা এই দলের দায়িত্ব।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, এই দেশ স্বাধীন হয়েছিল দেশের মানুষের স্বাধীনতার জন্য, দেশের মানুষের স্বাধীনতা রক্ষা করার জন্য। দেশের মানুষ মুক্তিযুদ্ধ করেছিল একটি স্বাধীন সার্বভৌম একটি বৈষম্যহীন অর্থনৈতিক ব্যবস্থা পাবে বলে। সেই লক্ষ্যেই জিয়াউর রহমান মুক্তিযুদ্ধ শুরু করেছিলেন এবং মানুষকে অনুপ্রাণিত করেছিলেন। একটি নতুন দর্শন, নতুন জীবনবোধ মানুষের সামনে তুলে ধরতে সক্ষম হয়েছিলেন।

সার্চ কমিটির প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন এটা জনগণের সাপে একটি চরম প্রতারণা। আমরা বিগত নির্বাচনেও দেখেছি তারা তাদের ক্ষমতাকে ধরে রাখার জন্য নিজেদের লোক দিয়ে নির্বাচন কমিশন গঠন করে। এই কমিশন মাধ্যমে নির্বাচন দিয়ে পরে বলে আমরা তো জিতে গেছি।

ফখরুল বলেন, এদেশের জনগণ আর সেই ফাঁদে পা দেবে না। দেশের জনগণ গণতন্ত্রকে ধ্বংস করার আওয়ামী লীগের যত পরিকল্পনা রয়েছে তা তারা নষ্ট করে দেবে। আর অতীতের যে ঐতিহ্য তা উঠে দাঁড়াবে। এই ভয়াবহ গণতন্ত্রবিরোধী, বাংলাদেশের মানুষ বিরোধী, স্বাধীনতাবিরোধী শক্তিকে রুখে দেওয়ার জন্য ঐক্য সৃষ্টি করে জাতীয় ঐক্য তৈরি করে একটি নিরপেক্ষ সরকারের নির্বাচনের মধ্য দিয়ে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করবে; ইনশাল্লাহ।

রচনা প্রতিযোগিতা কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. আ ফ ম উইসুফ হায়দারের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব অধ্যাপক ড. এ বি এম ওবায়দুল ইসলামের সঞ্চালনায় এসময় উপস্থিত ছিলেন স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম, ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল, সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফ মাহমুদ জুয়েল ও সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন প্রমুখ।

Previous articleসার্চ কমিটিতে বিএনপির নাম দেয়ার প্রশ্নই আসে না: রিজভী
Next articleনির্বাচন প্রক্রিয়াকে প্রশ্নবিদ্ধ করা বিএনপির অভ্যাস: শিক্ষামন্ত্রী
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।