বাংলাদেশ প্রতিবেদক: আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেছেন, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন সংবিধানের আলোকে বর্তমান সরকারের অধীনেই হবে। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের কোনো সুযোগ নেই। তবে নির্বাচনকে আরো গ্রহণযোগ্য করতে সংবিধানের আলোকে কোনো পরামর্শ দিলে সরকার ও নির্বাচন কমিশন অবশ্যই বিবেচনা করবে।

তিনি বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের অল অ্যাটাক আন্দোলন ঘোষণার সমালোচনা করে বলেন, ‘বিএনপির নেতারা ১০ ডিসেম্বরের স্বপ্ন দেখছেন। তাদের স্পষ্ট জানিয়ে দিতে চাই, আওয়ামী লীগ কোনো ভুঁইফোড় সংগঠন নয়। জাতির পিতার হাতে গড়া দল। ৭৩ বছরের আওয়ামী লীগের শিকড় বাংলার মাটির অনেক গভীরে। সুতরাং সরকার পতনের এসব হুঙ্কার দিলে লাভ নেই। বর্তমান সরকারের পতন ঘটানোর শক্তি বিএনপি বা কারো নেই।’

রোববার সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে স্থানীয় সরকারি হাজী আব্দুল জলিল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, আওয়ামী লীগের মূল শক্তি ক্ষমতা নয়, আওয়ামী লীগের মূল শক্তি হচ্ছে জনগণ। এজন্য আওয়ামী লীগের মাধ্যমে এ দেশের পরিবর্তন এসেছে। আওয়ামী লীগ বাংলাদেশকে দরিদ্র দেশ থেকে উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করছে। দেশের সব উন্নয়নের সঙ্গে আওয়ামী লীগ জড়িত। আর আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে আগামী ২০৩১ সালে বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের রাষ্ট্রে উন্নীত হবে। বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের রাষ্ট্রে উন্নীত করতে হলে আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় আসতে হবে। তাই সংগঠনকে নতুনভাবে সাজানো হচ্ছে। অথচ বিগত ১৩ বছরে বারবার আন্দোলন সংগ্রামের নামে নৈরাজ্য সৃষ্টি করে দেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করার অপচেষ্টা করেছে বিএনপি-জামায়াত। সবকিছু মোকাবিলা করে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে।

তিনি মানবাধিকার প্রশ্নে মির্জা ফখরুলের জবাবে বলেন, বিএনপির শাসনামলেই সবচেয়ে বেশি মানবাধিকার লঙ্ঘিত হয়েছে। এ যেন ভূতের মুখে রাম নাম।

হানিফ বিএনপিসহ সরকার বিরোধীদের হুশিয়ারি দিয়ে বলেন, আন্দোলনের দোহাই দিয়ে দেশে সন্ত্রাস, সহিংসতা, নাশকতা করে উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করতে চাইলে তাদের কঠোরভাবে দমন করা হবে।

সম্মেলনের উদ্বোধন করেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বেসামরিক বিমান ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি র আ ম উবায়দুল মোক্তাদির চৌধুরী এমপি।

আশুগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের আহবায়ক হাজী মোঃ সফিউল্লাহ মিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল-মাহমুদ স্বপন এমপি, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দি এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মোঃ আব্দুস সবুর। সম্মেলনে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তৃতা করেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান আল মামুন সরকার।

Previous articleরাজশাহীতে বনসাই প্রদর্শনী পরিদর্শন করলেন মেয়র লিটন
Next articleমহিপুরে ভুমি অফিসের খাস পুকুর দখল
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।