বাংলাদেশ প্রতিবেদক: শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর রমনায় ঢাকা জেলার পুলিশ সুপার (এসপি) মারুফ হোসেন সরদারের বাসায় গুলিবিদ্ধ হয়ে কনস্টেবল মেহেদী হাসানের মৃত্যু হয়। এখনো তার মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে জানা যায়নি। এই ঘটনাকে আত্মহত্যা বলে ধারণা করলেও এ বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানাতে পারেনি পুলিশ।

মেহেদী হাসান মৃত্যুর দু’দিন আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এক পোস্টে লিখেছিলেন, ‘কথা দিয়ে আঘাত না করে হাত দিয়ে আঘাত করা যেত। ক্ষতটা অন্তত দ্রুত সেরে যেত।’ তবে তার স্ট্যাটাস থেকে জানা যায়নি তিনি কার আঘাতে যন্ত্রণাদগ্ধ ছিলেন। এমন আরও কয়েকটি আবেগময়ী স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন কনস্টেবল মেহেদী হাসান।

মেহেদি হাসান (২৬) রাজধানীর বেইলি রোডে এসপি মারুফ সরদারের বাসভবনের প্রধান ফটকে নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত ছিলেন।

শুক্রবার এসপি মারুফ হোসেন সরদার জানিয়েছেন, দুপুরের দিকে মেহেদি হাসান প্রধান ফটকে রাইফেল নিয়ে দায়িত্ব পালন করছিলেন। রাইফেলে গুলি লোড করা ছিল। মনে হচ্ছে, মেহেদি আত্মহত্যা করেছেন। আবার অসাবধানতাবশত ট্রিগারে চাপ লেগে গুলি বেরিয়ে যেতেও পারে। সিআইডির অপরাধ শনাক্ত দল ঘটনাস্থল থেকে আলামত সংগ্রহ করছে।

রমনা থানার ডিউটি অফিসার এসআই আমেনা বেগম শুক্রবার সন্ধ্যায় জানিয়েছেন, এ ঘটনায় এখনো কোনো মামলা হয়নি।

Previous articleচতুর্থ টি-২০: অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সন্ধ্যায় নামছে বাংলাদেশ
Next articleস্পেন যাওয়ার পথে নৌকা ডুবে ৪২ জনের মর্মান্তিক মৃত্যু
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।