নরসিংদী প্রতিনিধি: নরসিংদীতে নিখোঁজের ৩ মাস পর পারভেজ (২৫) নামে এক যুবকের বস্তাবন্দী কঙ্কাল উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ বুধবার জেলার শিবপুরের দড়িচরের একটি আখ ক্ষেত থেকে এই কঙ্কাল উদ্ধার করা হয়।

সকালে এই ঘটনায় গ্রেপ্তারকৃত দুই ডাকাতের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী পুলিশ এই অভিযান চালায়। নিহত পারভেজ পলাশ উপজেলার গুচ্ছগ্রাম এলাকার তাজুল ইসলামের ছেলে। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় ডাকাতিসহ বিভিন্ন অপরাধে একাধিক মামলা রয়েছে। সে আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সদস্য ছিলেন বলে জানিয়েছেন পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত বছরের ৭ অক্টোবর থেকে বাড়ি থেকে পারভেজ নিখোঁজ হয়। কোথাও সন্ধান না পেয়ে নিখোঁজ পারভেজের বাবা তাজুল ইসলাম প্রথমে পলাশ থানায় সাধারণ ডায়রি করেন। পরে তিনি বাদী হয়ে শিবপুর মডেল থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। এই মামলায় ইতিপূর্বে বাবুসহ ৩ ডাকাতকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তাদের দেয়া তথ্য অনুযায়ী আজ বুধবার ভোরে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার গাউছিয়া থেকে ডাকাত জালাল ও নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার ডৌকারচর থেকে ডাকাত বদুকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে তাদের দেয়া তথ্য অনুযায়ী পুলিশ বুধবার সকালে জেলার পলাশ উপজেলার দড়িচরের একটি আখক্ষেত থেকে নিখোঁজ পারভেজের বস্তাবন্দী মাথার খুলি ও হাড় উদ্ধার করে।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মনির হোসেন বলেন, ডাকাতিতে লুট করা টাকা-পয়সা নিয়ে বিরোধের জের ধরে নিজ দলের সদস্যরা পারভেজকে হত্যা করেছে। নিখোঁজ পারভেজের কঙ্কাল উদ্ধার ও ঘাতকদের গ্রেপ্তারের মাধ্যমে হত্যার রহস্য উদঘাটিত হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতদের আদালতের মাধ্যমে এই ঘটনায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী নেয়া হবে।