গুরুতর আহত মোয়াজ্জিন আব্দুল হান্নান

তাবারক হোসেন আজাদ: লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে আব্দুল হান্নান (৪৫) নামে এক মসজিদের মোয়াজ্জিনকে কুপিয়ে আহত করে হত্যার চেষ্টা চালানো হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে একই এলাকার মোস্তফা কামাল, রাব্বি ও ফয়সালের বিরুদ্ধে। সোমবার রাতে দেড় শতাংশ জমির বিরোধ নিয়ে চরপাতা ইউনিয়নে গাজীনগর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয় লোকজন আহত হান্নানকে উদ্ধার করে রায়পুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছেন। এ ঘটনায় আহত আব্দুল হান্নানের স্ত্রী মাহ্ধসঢ়;ফুজা বেগম মঙ্গলবার লক্ষ্মীপুর চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজেস্ট্রেট আদালতে ৫ জনকে আসামী করে মামলা করেছেন। অপরদিকে একই দিনে বর্গা জমি থেকে ঘাস কাটাকে কেন্দ্র করে কেরোয়া ইউনিয়নে লুধুয়া গ্রামে কৃষক আব্দুল হক বেপারী ও ব্যবসায়ী ফরিদের মধ্যে সংঘর্ষে ২ নারীসহ ৪ জন সরকারী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আব্দুল হান্নান জানান, গত এক বছর ধরে একই এলাকার প্রভাবশালী মোস্তফা কামাল খোকনের পরিবারের সাথে দেড় শতাংশ জমি নিয়ে বিরোধ চলছে। গত বছরে জানুয়ারীর মাসে আম পাড়াকে কেন্দ্র করে আমার উপর নির্মম শারীরিক নির্যাতন করে মোস্তফা কামালের পরিবার। তখন থানায় মামলা হয় এবং মিমাংশাও হয়ে যায়। সোমবার রাতে অসুস্থ্য বোন- জামাতাকে দেখতে গিয়ে পথে মোস্তফা কামালের ছেলে রাব্বিকে জমি অদল-বদল নিয়ে বাড়াবাড়ী না করার জন্য অনুরোধ জানাই। এতেই মোস্তফা কামাল ক্ষুব্ধ হয়ে তার ছেলে রাব্বি, ফয়সাল, স্ত্রী শাহীনুর ও মেয়ে সালমাকে নিয়ে আমাকের একা পেয়ে আমার হামলা চালিয়ে লাঠি, রড. দা দিয়ে মাথা ও পাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে হত্যার চেষ্টা চালায়। আমাকে মৃত ভেবে তারা ফেলে রেখে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন উদ্ধার করে সরকারী হাসপাতালে ভর্তি করায়। অভিযুক্ত মোস্তফা কামাল ও তার ছেলে রাব্বির জানান, জমি নিয়ে আব্দুল হান্নানের ভগ্নিপতির সাথে জমি নিয়ে বিরোধ। সোমবার রাতে আব্দুল হান্নান আমাদের সাথে চরম দূর্ব্যবহার করে। এতে আমাদের হাতাহাতি ছাড়া অন্য কিছু হয় নাই। রায়পুর থানার ওসি তদন্ত মোঃ সোলাইমান হোসেন বলেন, আহত আব্দুল হান্নান আমাদের কাছে এসেছেন। তাকে হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসা নিতে বলা হয়েছে। মামলা হলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।