ফুলবাড়ীতে পল্লী বিদ্যুতের ছিড়ে পড়ে থাকা তারে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে দিনমজুরের মৃত্যু

অমর চাঁদ গুপ্ত অপু: দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে দিনাজপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর বৈদ্যুতিক খুঁটি থেকে ছিঁড়ে পড়ে থাকা তারে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে শুকুর আলী শুকরু (৫৫) নামের এক দিনমজুরের মর্মান্তিক মৃত্যু ঘটেছে।

গতকাল শনিবার সকাল ১১টায় উপজেলার শিবনগর ইউনিয়নের রাজারামপুর ফকিরপাড়া এলাকায় এই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে। নিহত শুকুর আলী শুকরু একই গ্রামের মৃত খন্দোবুড়ার ছেলে। প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, সকালে শুকুর আলী শুকরু আব্দুর রহিমের আমবাগানের চারা গাছের পরিচর্যা করার সময় বাগানের মধ্যে খুঁটি থেকে ছিড়ে পড়ে থাকা পল্লী বিদ্যুতের তার হাত দিয়ে সরাতে গেলে তিনি বিদ্যুতায়িত হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান। পরে তার শরীর বিদ্যুতায়িত হয়ে থাকায় স্থানীয়রা তাকে উদ্ধারের চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে পল্লী বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষসহ স্থানীয় ফায়ার সার্ভিকে জানান। ফায়ার সার্ভিসের লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে কর্তৃব্যরত চিকিৎস মো. রেজাউল করিম তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনাস্থল সংলগ্ন পিটিকল কোম্পানীর গার্ড আবু তাহের বলেন, দীর্ঘ এক বছর থেকে পল্লী বিদ্যুতের তারটি খুঁটি থেকে ছিড়ে ওই বাগানে পড়ে রয়েছে। একাধিকবার পল্লী বিদ্যুতের লাইনম্যানসহ কর্তৃপক্ষকে জানানোর পরও তারটি সরানোর ব্যবস্থা না করায় দিনমজুর শুকুর আলী শুকরুর অকালে প্রাণ চলে গেলো। দিনমজুর শুকরু সকাল ১১টায় বিদ্যুস্পৃষ্ট হয়ে মারা গেলেও পল্লী বিদ্যুতের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে এসেছেন বেলা ২টায়। এতে স্থানীয়রা বিক্ষুদ্ধ হয়ে পড়েন। কিন্তু পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে আগে থেকেই ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছিল। তবে মৃত শুকরু লাশ পরিবারের লোকজন বাড়িতে নিয়ে গেছে দাফন কাফন করার জন্য। ফুলবাড়ী ফায়ার স্টেশনের স্টেশন মাস্টার মো. মোকাররম হোসেন বলেন, স্থানীয়দের ফোন পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রথমে লাশ উদ্ধারের চেষ্টা চালিয়েও ব্যর্থ হন। কারণ ওই তারের মধ্য দিয়ে বিদ্যুৎ প্রবাহ অব্যাহত ছিল। একাধিকবার পল্লী বিদ্যুৎ সমিতিতে দীর্ঘ সময় ধরে ফোন করা পর ফোনটি রিসিভ করার পর ঘটনাটি জানিয়ে বিদ্যুৎ লাইন বন্ধ করার জন্য বলা হয়। এরপর বিদ্যুৎ লাইন বন্ধ করা হলে নিহত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। দিনাজপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ (ফুলবাড়ী-বিরামপুর) এর উপ-মহাব্যবস্থাপক (ডিজিএম) মো. সোহেল আকরাম বলেন, তারটি ছিঁড়ে পড়েছিল সে বিষয়ে তাদের জানা ছিল না। তাছাড়া যে তারটি ছিঁড়ে পড়ে ছিল সেটি নিউট্রাল লাইনের। সেখান দিয়ে বিদ্যুৎ প্রবাহিত হওয়ার কথা না। কি কারণে তারটিতে বিদ্যুৎ প্রবাহিত হলো সে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. ফখরুল ইসলাম বলেন, বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে দিনমজুরের মৃত্যুর পর স্থানীয়রা বিক্ষুদ্ধ হয়ে পড়েছেন এমন তথ্যের বিত্তিতে সেখানে যাতে কোন প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে সেজন্য পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।