৪ দিন অনশনের পর প্রেমিকের সঙ্গে রিমার বিয়ে সম্পন্ন

বাংলাদেশ প্রতিবেদক: সিরাজগঞ্জের তাড়াশে বিয়ের দাবিতে অনশনের চারদিন পর প্রেমিক আবুল হাসেমের সঙ্গে প্রেমিকা রিমা বেগমের বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে। শনিবার রাতে স্থানীয় গণমান্য ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে প্রেমিকের বাড়িতে ৫০ হাজার টাকা কাবিনমূলে তাদের বিয়ে হয়।

স্থানীয় কয়েকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, তাড়াশ উপজেলার কাউরাইল গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে আবুল হাসেমের (২২) সঙ্গে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার উত্তর কৃষ্ণগোবিন্দপুর গ্রামের মোহবুল হকের মেয়ে রিমা বেগমের প্রায় এক বছর আগে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। কিন্তু অনেক দিন পেরিয়ে গেলেও হাসেমকে বিয়ে না করে নানা রকম টালবাহানা করতে দেখে গত ৯ অক্টোবর তার বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অনশনে বসেন রিমা বেগম।

প্রেমিক হাসেম বিয়ে না করলে আত্মহত্যা করবেন বলেও হুঁশিয়ারি দেন তিনি। এর আগেও একবার একই দাবিতে হাসেমের বাড়িতে অনশন শুরু করেছিলেন তিনি।

বিষয়টি গ্রামের মাতব্বররা সমাধানের চেষ্টা করলেও হাসেমের পরিবারের লোকজন ধরা দেননি। এ নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। পরে শনিবার রাতে গ্রাম্য শালিসের মাধ্যমে তাদের প্রেমের সম্পর্ক প্রমাণ হলে আবুল হাসেমের পরিবার রিমা বেগমকে স্ত্রীর মর্যাদা দিয়ে ৫০ হাজার টাকা কাবিনমূলে বিয়ে সম্পন্ন করেন।

এ বিষয়ে তাড়াশ সদর চেয়ারম্যান বাবুল শেখ বলেন, মেয়েটি ৪ দিন ধরে অনশনে ছিলেন। বিষয়টি শুনে গ্রাম্য প্রধানদের সঙ্গে নিয়ে শালিস বৈঠক করা হয়। বৈঠকে সকল তথ্য সত্য প্রমাণিত হলে গ্রামের সবার উপস্থিতিতে ছেলের পরিবার দোষ স্বীকার করে মেয়েটিকে হাসেম বিয়ে করে।