বোরহানউদ্দিনে জরুরি ভিত্তিতে ৪ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন

এএসটি সাকিল: ভোলার বোরহানউদ্দিনে পুলিশ ও এলাকাবাসীর মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় উদ্ভুত পরিস্থিতি মোকাবিলায় হেলিকপ্টারে করে জরুরি ভিত্তিতে ৪ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে।

রোববার (২০ অক্টোবর) দুপুরে বিজিবির জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. সলিফুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এছাড়া বোরহানউদ্দিনে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় কাজ করছে এক প্লাটুন কোস্ট গার্ড সদস্য। কোস্টগার্ডের মিডিয়া উইংয়ের কর্মকর্তা কাজী ফয়সাল এ তথ্য জানিয়েছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বোরহানউদ্দিনে এক যুবকের ফেসবুক পোস্টের প্রতিবাদে স্থানীয় লোকজন বিক্ষোভ মিছিল করার সময় পুলিশ বাধা দেয়। এসময় তাদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ শুরু হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ টিয়ারশেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত সংঘর্ষের ঘটনায় মাহাফুজ, মিজান, শাহীন ও মাহবুব নামে চারজন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে সাংবাদিকসহ অন্তত অর্ধশত। এলাকায় এখনো থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধদের মধ্যে ৯ জনকে বরিশাল শেরে বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এরা হলেন- বোরহানউ‌দ্দি‌নের ছোটমা‌নিকা এলাকার মিজানুর রহমান (৩০), নান্টু (৪০), মাকসুদুর রহমান (১৮), তানভীর (৩০), অ‌লিউল্লাহ (৪০), সি‌দ্দিক (২৮), তাহের, শামীম ও সোহরাব।

রোরহানউদ্দিন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. শাহীন জানান, সংঘর্ষের ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত মাহফুজ ও মিজানের মরদেহ হাসপাতালে আনা হয়েছে। আহতাবস্থায় বেশ কয়েকজন ভর্তি রয়েছে।

অপরদিকে, ভোলা সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) ডা. তৈবুর রহমান জানান, সংঘর্ষের ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হয়ে চিকিৎসা নিতে আসা দুই ব্যক্তি সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে।

বোরহানউদ্দিন থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) মোহাইমিনুল ইসলাম বলেন, পরিস্থিতি শান্ত রাখতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত রয়েছেন।