বিয়েতে রাজি না হওয়ায় অভিমানে কিশোরীর আত্মহত্যা

গিয়াস কামাল: নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে বিয়েতে রাজি না হওয়ায় পরিবারের সাথে অভিমান করে মোসাঃ বিথী আক্তার (১৪) নামের এক শিক্ষার্থীর গলায় ওড়না পেচিঁয়ে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। শনিবার উপজেলার সনমান্দি ইউনিয়নের দৌলরদী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নারায়নগঞ্জ জেলা হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে।নিহত বিথী স্থানীয় পঞ্চমীঘাট উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেনীর ছাত্রী। পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার সনমান্দি ইউনিয়নের দৌলরদী গ্রামের আনোয়ার হোসেনের মেয়ে বিথী আক্তারের অমতে বিয়ে ঠিক করে তার পরিবার। রোববার বিয়ে হওয়ার কথা। বিয়েতে রাজি না হওয়ায় পরিবারের চাপসৃষ্টিতে বাবা-মার সাথে অভিমান করে বিথী গতকাল শনিবার ঘরের আড়ার সাথে ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। খবর পেয়ে সোনারগাঁও থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেলা হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। এলাকাবাসী জানান, কয়েক দিন আগে এই গ্রামের এক বাল্য বিবাহ বন্ধ করে দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। তারপরেও শিক্ষা না নিয়ে কেন জোর করে শিক্ষার্থীকে বিয়ে দিচ্ছেন তার পরিবারের লোকজন। সোনারগাঁ থানার ওসি মনিরুজ্জামান জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।