সোনারগাঁওয়ে স্কুলের পাশে মুরগীর ফার্ম: দুর্গন্ধে ক্লাস করতে পারছে না শিক্ষার্থীরা

গিয়াস কামাল: নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ের স্কুলের পাশে মুরগীর ফার্ম। উপজেলার বারদী ইউনিয়নের আলগীর চর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে এক প্রভাবশালী এ বয়লার মুরগীর ফার্ম গড়ে তুলেছেন। পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র ছাড়া ও নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে ফার্ম গড়ে তোলায় মুরগীর বিষ্ঠার দূর্গন্ধে ক্লাস করা দায় হয়ে পড়েছে শিক্ষার্থীদের। এতে করে শিক্ষার্থীরা বায়ুবাহিত রোগে আক্রান্ত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন অভিভাবকরা। এ বিষয়ে একাধিকবার মৌখিকভাবে অভিযোগ করেও কোন ফল পাওয়া যায়নি। প্রভাবশালীর ক্রমাগত হুমিকর কারনে মুখ খুলতে রাজি হননি ওই স্কুলের শিক্ষকরা। জানা যায়, উপজেলার বারদী ইউনিয়নের আলগীর চর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে প্রভাবশালী হযরত আলী ওরফে হযরত ডাকাত ও তার মেয়ের জামাই আমিন একটি মুরগীর ফার্ম গড়ে তুলেছেন। স্কুলের পাশে মুরগীর ফার্ম থাকার কারনে মুরগীর বিষ্ঠার দুর্গন্ধে ক্লাসে মনযোগ হতে পারছে না শিক্ষার্থীরা। তাছাড়া দুর্গন্ধের কারনে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতির হার দিন দিন কমে যাচ্ছে। ফলে ওই স্কুলের অভিভাবকরা প্রশাসনের দৃষ্টি কামনা করেছেন। এলাকাবাসীর অভিযোগ, আলগীর চর গ্রামের হযরত আলী ওরফে হযরত ডাকাত তার প্রভাবে স্কুলের পাশে এ পোল্ট্রি ফার্ম গড়ে তুলেছেন। এ বিষয়ে বাঁধা দিলে মারধর ও মিথ্যা মামলার হুমকি দেয়। তাদের বিরুদ্ধে কেউ মুখ খুলতে সাহস পায় না। তাদের অত্যাচারে এলাকার লোকজন অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। বর্তমানে শিক্ষার্থীরা দুর্গন্ধে ক্লাস করতে পারছে না। ৮৪ নং আলগীর চর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হাজেরা বেগম জানান, মুরগীর ফার্মের বিষয়ে আমরা কিছু বলতে পারি না। তবে কমিটি যদি বিষয়টি দেখেন তাহলে শিক্ষার পরিবেশ ফিরে আসবে। আলগীর চর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সভাপতি নাজিমউদ্দিন রতনের সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলে তার মোবাইল বন্ধ পাওয়া যায়। ফার্মের মালিক আমিনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমাদের জমিতে ফার্ম গড়ে তুলেছি। এ স্কুল এখানে থাকবে না। তাছাড়া গন্ধ স্কুলে যায় না।

বারদী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জহিরুল হক জানান, বিষয়টি আমি জেনে ওই স্কুল পরিদর্শন করে পরিবেশ খারাপ দেখে শিক্ষা অফিসারকে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সুপারিশ করেছি। সোনারগাঁও উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার নিখিল চন্দ্র দাস জানান, বারদী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এ বিষয়ে মৌখিক অভিযোগ দিয়েছেন। আমি স্কুল কমিটির লোকজনকে নিজে ফোন করে অভিযোগ দেওয়ার জন্য বলেছি। লিখিত অভিযোগ দিলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সোনারগঁও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো.রকিবুর রহমান খাঁন বলেন, মুরগীর ফার্মের বিষয়ে ব্যবস্থা নিয়ে শিক্ষার্থীদের শিক্ষার উপযোগী পরিবেশ তৈরি করা হবে।