ঈশ্বরদীতে অতিরিক্ত মদ পানে গৃহবধূর মৃত্যু

স্বপন কুমার কুন্ডু: অতিরিক্ত মদ্যপানে ঈশ্বরদীতে এক গৃহবধূর মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে। নিহত গৃহবধু সাহাপুর ইউনিয়নের নতুনহাট গোল চত্বর এলাকার জুয়েলের স্ত্রী তানিয়া (২২)। বৃহস্পতিবার রাতে তাকে দাফন করা হয়েছে। নিহতের বাবা মাসুম হোসেন ঘটনাটি নিশ্চিত করেছেন জানান, বৃহস্পতিবার (২৮ মে) দুপুরের দিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মেয়ের মৃত্যু হয়।
স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার রাতে ঈদ উপলে স্বামীর বাড়ির ছাদে স্বামীসহ পরিবারের দুই-তিন সদস্য মিলে মদ পান করেন। এরপর মধ্যরাতে গৃহবধূ তানিয়া অস্বস্তি বোধ করলে প্রথমে তাকে পল্লী চিকিৎসক কাছে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়। বুধবার সকালের দিকে অবস্থার অবনতি হলে স্বজনরা ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। ঈশ্বরদী হাসপাতালে অবস্থার উন্নতি না হলে তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। রাজশাহীতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার তাঁর মৃত্যু হয়।
এব্যাপারে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর পাবনা ‘খ’ সার্কেলের সহকারি উপ-পরিদর্শক হাফিজুর রহমান জানান, মদ বিক্রির ব্যাপারে কঠোর নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। ঘটনাটি তাঁরা তদন্ত করে দেখছেন।
ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আসমা খান বলেন, যে গৃহবধূ মারা গেছেন, তার পরিবারের সদস্যদের সাথে কথা বলে জানা গেছে তিনি মদ্যপান করেছিলেন। নিয়মিত মদ্যপানের অভ্যাস না থাকলে অনেক সময় অতিরিক্ত মদপান করার ফলে শরীরে বিষক্রিয়া হয়। এতে মানুষ মারা যেতে পারে। অতীতেও এমন বহু ঘটনা দেখা গেছে বলে তিনি জানিয়েছেন।
থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বাহাউদ্দীন ফারুকী বলেন, এঘটনায় রাজশাহী থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।