পুলিশ হেফাজতে ধর্ষক মনির হোসেন টেলু।

তাবারক হোসেন আজাদ: বাসার পাশের পুকুরে গোসল করতে এসে চাচিকে (২৬) বাসায় একা শুয়ে থাকতে দেখে মুখে কসটিব লাগিয়ে জোড়পুর্বক ধর্ষন করে পালিয়ে যায় একই বাড়ীর সম্পর্কিত-ভাতিজা ইলেট্রিক মিস্ত্রী মনির হোসেন টেলু (৩৪)। এঘটনায় ক্ষোভ বিরাজ করায় ও এলাকায় জানাজানি হলে মঙ্গলবার সন্ধায় (৮ সেপ্টেম্বর) ধর্ষক ভাতিজা মনির হোসেন টেলুকে আটক করেছে পুলিশ । ঘটনাটি ঘটেছে (২ সেপ্টেম্বর) সকালে লক্ষ্মীপুরের রায়পুর পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড মধুপুর গ্রামে।

গ্রেপ্তারকৃত ধর্ষক মনির হোসেন টেলু পৌরসভার মধুপুর গ্রামের মৃত লুতফুর রহমানের বড় ছেলে।

মামলার এজাহারে জানাযায়, ঘটনার দিন ওই নারীকে বাসায় রেখে পান কিনতে নতুন বাজারে যান তার স্বামী। সকাল ৭টার দিকে মনির হোসেন টেলু ওই মহিলার বাসার সামনের পুকুরে গোসল করতে আসে। এসময় ঘরে ওই নারীকে একা পেয়ে মুখে কসটেব লাগিয়ে জোড়পুর্বক ধর্ষন করে চলে যায়। এঘটনায় বিচার চেয়ে মনিরের পরিবারকে জানানো হলে কোন প্রতিকার পাওয়া যায়নি। অবশেষে মঙ্গলবার সন্ধায় ওই নারী বাদী হয়ে মনিরকে আসামী করে থানায় ধর্ষন আইনে মামলা করেন। পুলিশ অভিযান চালিয়ে শহরের একটি চা দোকান থেকে মনিরকে গ্রেপ্তার করে।

পুলিশ হেফাজতে থাকা অভিযুক্ত মনির হোসেন টেলু চাচিকে ধর্ষনের ঘটনায় অনুতপ্ত বলে জানান।

রায়পুর থানার ওসি আবদুল জলিল জানান, চাচিকে বাসার সামনে পুকুরে গোসল করতে গিয়ে তাকে একা পেয়ে ধর্ষন করে। এ মামলায় ধর্ষক মনিরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বুধবার সকালে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হবে।