নকল গোলাপী জর্দ্দা প্রস্তুতকারীদের আইনের আওতায় আনার দাবিতে শাহজাদপুরে সংবাদ সম্মেলন

বিমল কুন্ডু: সিরাজগঞ্জ জেলার শাহজাদপুরের ঐতিহ্যবাহী তৃপ্তি জর্দ্দা ফ্যাক্টারীর প্রস্তুতকৃত স্বনামধন্য গোলাপী জর্দ্দার অনুকরণে নকল গোলাপী জর্দ্দা প্রস্তুতকারীদের অবিলম্বে আইনের আওতায় আনার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ফ্যাক্টারীর মালিক জাহাঙ্গীর হোসেন শামীম। আজ সোমবার বিকেলে শাহজাদপুর উপজেলার গঙ্গাপ্রসাদ গ্রামে তৃপ্তি জর্দ্দা ফ্যাক্টারীর কার্যালয়ে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে জাহাঙ্গীর হোসেন শামীম জানান, পৈত্রিক সূত্রে প্রাপ্ত হয়ে আমাদের মালিকাধীন মেসার্স তৃপ্তি জর্দ্দা ফ্যাক্টরী প্রায় ৪২ বছর ধরে ঐতিহ্যবাহী গোলাপী জর্দ্দা প্রস্তুত করে তা ঢাকা, চট্টগ্রাম, রাজশাহীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বাজারজাত করে আসছে। কিন্তু প্রায় ৬ মাস ধরে কতিপয় অসাধু ব্যবসায়ী মেসার্স তৃপ্তি জর্দ্দা ফ্যাক্টারীর তৈরী গোলাপী জর্দ্দার ডিজাইন, টেডমার্ক, লোগো, ছবি ও নাম হুবহুব নকল করে বাজারজাত করে আসছে। এর ফলে একদিকে ব্যবসায়ীক সুনাম নষ্ট হওয়ার পাশাপাশি তিনি আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন। অন্যদিকে, সরকার বিপুল পরিমাণ রাজস্ব আদায় থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। লিখিত বক্তব্যে তিনি আরও জানান, গোলাপী জর্দ্দা তৈরী ও বাজারজাত করা বাবদ বাৎসরিক আয়কর প্রদানের পাশাপাশি তিনি প্রতিমাসে প্রায় ৪ লক্ষ টাকা ভ্যাট ও সম্পূরক দিয়ে আসছেন। অথচ, নকল গোলাপী জর্দ্দা প্রস্তুতকারী অসাধু ব্যবসায়ী চক্র জালিয়াতির মাধ্যমে একদিকে তাদের কোম্পানীর সুনাম ক্ষুন্ন করে ব্যবসায়ীকভাবে তাদের নানাভাবে হয়রানী ও ক্ষতিগ্রস্থ করছে। অন্যদিকে, ভ্যাট ও সম্পূরক রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে ভোক্তা অধিকার লঙ্ঘণ করছে। সংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, এ বিষয়ে আইনগত পদক্ষেপ হিসেবে গত ১৯ অক্টোবর ঢাকা যাত্রাবাড়ী থানায় তিনি একটি সাধারণ ডায়েরী করেছেন। পাশাপাশি নকল গোলাপী জর্দ্দা প্রস্তুতকারীদের সন্ধানদাতাকে নগদ ১ লক্ষ টাকা পুরষ্কার দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে তিনি তৃপ্তি জর্দ্দা ফ্যাক্টারীর উৎপাদিত গোলাপী জর্দ্দার সুনাম ও ঐতিহ্য রক্ষায় বিষয়টি সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরের নজরে আনার স্বার্থে উপস্থিত সাংবাদিকদের পত্রিকায় প্রকাশ ও প্রচারের অনুরোধ জানান। সংবাদ সম্মেলনে শাহজাদপুরের কর্মরত সকল প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সংবাদ কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।