আরিফুর রহমান: মাদারীপুরের কালকিনিতে পুত্রবধুর জ্বালা-যন্ত্রনা সহ্যয় করতে না পেরে অনিতা শিকদার(৬১) নামে এক বৃদ্ধা শ্বাশুড়ি গলায় ফাঁস দিয়ে আত্নহত্যা করার অভিযোগ উঠেছে। নিহত বৃদ্ধা অনিতা শিকদার উপজেলার ডাসার সরকারি শেখ হাসিনা উইমেন্স কলেজের ভুগোল বিভাগের প্রভাষক সঞ্জয় শিকদারের মা। আজ বৃহস্পতিবার ভোরে এ ঘটনা ঘটে।
পুলিশ ও এলাকা সুত্রে জানাগেছে, উপজেলার নবগ্রাম এলাকার নবগ্রামের বৃদ্ধা অনিতা শিকদারের স্বামী প্রায়াত হাওলোধর শিকদারের মৃত্যুবার্ষিকী অনুষ্ঠান নিয়ে বুধবার তার পুত্রবধু বিথিকা দত্তের বাড়িতে বসে কয়েক দফা কথা কাটাকাটি হয়। এ ছাড়া বৃদ্ধা অনিতাকে তার পুত্রবধু বিথিকা বিভিন্ন সময় পারিবারিক বিষয় নিয়ে কারনে-অকারনে জ্বালা-যন্ত্রনা দিয়ে আসছে। এ যন্ত্রনা সহ্যয় করতে না পেরে বৃদ্ধা অনিতা অভিমান করে নিজ ঘরের পিছনের একটি ডুমুর গাছের সঙ্গে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্নহত্যা করে। পরে খবর পেয়ে উপজেলার ডাসার থানা পুলিশ নিহতের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মাদারীপুর মর্গে প্রেরন করেন।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বেশ কয়েকজন স্থানীয় লোকজন বলেন, দীর্ঘদিন ধরে বিথিকা তার শ্বাশুড়ি অনিতাকে জ্বালা-যন্ত্রনা দিয়ে আসছে। তাই সে এ জ্বালা সইতে না পেরে আতœহত্যা করে বিথিকাকে চিরতরে মুক্ত করে দিয়ে গেছে।
পুত্রবধু বিথিকা দত্ত বলেন, কি কারনে আত্নহত্যা করেছে আমি কিছু জানিনা। আমি ঘরে ঘুমানো ছিলাম।
নিহতের ছেলে প্রভাষক সঞ্জয় শিকদার বলেন, পারিবারিক বিষয় নিয়ে আমার মা আত্নহত্যা করেছে।
এ ব্যাপারে উপজেলার ডাসার থানার ওসি মুহাম্মদ আবদুল ওহাব বলেন, খবর পেয়ে আমরা নিহতের লাশ উদ্ধার করেছি। থানায় একটি মামলা হয়েছে। তবে শুনেছি পারিবারিক বিষয় নিয়ে সে নাকি আত্নহত্যা করেছে।