বাংলাদেশ প্রতিবেদক: রাজধানীর বনানী থানাধীন মহাখালীতে চাঞ্চল্যকর কিশোর আরিফ (১৬) হত্যা মামলার এক আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে র্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র্যাব-১)। আজ সোমবার এ তথ্য নিশ্চিত করেন র্যাব-১ এর সহকারী পুলিশ সুপার মুশফিকুর রহমান তুষার। গ্রেপ্তারকৃত কিশোরের নাম মো. টিপু (১৮)।
পুলিশ সুপার তুষার জানান, গতকাল রোববার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রাজধানীর বনানী থানার মহাখালী কাঁচাবাজার জনস্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের প্রথম গেটের সামনে রাস্তার উপর অভিযান চালিয়ে আরিফ হত্যাকাণ্ডে জড়িত আসামি টিপুকে (১৮) গ্রেপ্তার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে হত্যার কথা স্বীকার করেছে।

র্যাব সুত্রে জানা গেছে, গত ১ জানুয়ারি রাতে মহাখালীর কাঁচাবাজার এলাকায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে আরিফকে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করে টিপু ও তার সহযোগীরা। এ ঘটনায় নিহতের বাবা বাদী হয়ে বনানী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় গ্রেপ্তার করা হয় টিপুকে।

ঘটনার বিবরণে র্যাব জানায়, গত শুক্রবার রাত সোয়া ৯টায় মহাখালী কাঁচাবাজারের সামনে গ্রেপ্তার আসামি টিপু এবং তার সহযোগী জনি, নুরু এবং জোনাকীসহ কয়েকজনের সঙ্গে হাসান ও সোহাগ নামে দুই কিশোরের কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে টিপুসহ তার সহযোগীরা ইট দিয়ে এলোপাতাড়ি মেরে হাসান ও সোহাগের মাথা ফাটিয়ে দেয়। সোহেল নামে এক কিশোর বিষয়টি আহত হাসানের ভাই রবিনকে জানায়। খবর পেয়ে রবিন ও তার বন্ধু আরিফ ঘটনাস্থলে স্থানে ছুটে আসে।

র্যাব আরও জানায়, এ সময় টিপু ও তার সহযোগীরা আরিফকে এলোপাতাড়ি কিলঘুষি মারতে থাকে। এর একপর্যায়ে জনি ধারালো চাকু দিয়ে আরিফের বুকে আঘাত করে পালিয়ে যায়। গুরুতর অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।