বাংলাদেশ প্রতিবেদক: রাজশাহীতে বাস, মাইক্রোবাস ও সিএনজি অটোরিকশার ত্রিমুখী সংঘর্ষে নারী ও শিশুসহ ১৭ জন নিহত হয়েছেন। শুক্রবার (২৬ মার্চ) দুপুরে নগরীর কাঁটাখালিতে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, মাইক্রোবাসের ১৩ যাত্রী তিনটি পরিবারের সদস্য। নিহতদের মধ্যে চারজন নারী ও ২ শিশু রয়েছে। আহত হয়েছেন আরও বেশ কয়েকজন। গুরুতর অবস্থায় তাদের রাজশাহী মেডিকেলে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, দুপুরে হানিফ পরিবহনের যাত্রীবাহী বাসটি ঢাকা যাচ্ছিলো। পথে কাটাখালি এলাকায় পৌঁছালে, বিপরীত দিক থেকে আসা একটি মাইক্রোবাস ও সিএনজি চালিত ইমার সঙ্গে ত্রিমুখী সংঘর্ষ হয়।

এসময় মাইক্রোবাসের গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ হয়। আগুনে মাইক্রোবাসটি সম্পূর্ণ পুড়ে যায়। এতে মাইক্রোবাসে থাকা দুই শিশু ও চার নারীসহ ১১ যাত্রী ঘটনাস্থলেই মারা যান। আহত হন আরও বেশ কয়েকজন। খবর পেয়ে উদ্ধারকাজ শুরু করে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা।

পাশের সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায়, ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়কের রাজশাহীর কাঁটাখালি এলাকা। নাটোর থেকে ছেড়ে আসা কালো রংয়ের একটি মাইক্রোবাস দ্রুতগতিতে রাজশাহী শহরের দিকে যাচ্ছিলো। এসময় বিপরীত দিক থেকে আসা ঢাকাগামী হানিফ পরিবহনের যাত্রীবাহী একটি বাসের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে মাইক্রোবাসের গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ হয়ে আগুন ধরে যায়।

রাজশাহী ফায়ার সার্ভিসের উপপরিচালক আবদুর রশিদ জানান, ঢাকা কোচ, মাইক্রোবাস এবং মাঝখানে ইমা গাড়ির ত্রিমুখী সংঘর্ষের কারণে দুর্ঘটনাটি বড় হয়েছে।

দুর্ঘটনার কারণ হিসেবে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক বলেন, মাইক্রোবাসের ভিতরের সিলিন্ডার বিস্ফোরণ হয়ে আগুন লেগেছে।

আহতদের মধ্যে বেশ কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক।

Previous articleবন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক মানেই প্রভুত্ব স্বীকার করা নয়: ফখরুল
Next articleগত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩৩ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৩৭৩৭
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।