বাংলাদেশ প্রতিবেদক: সাতক্ষীরার আশাশুনির খোলপেটুয়া নদীর জোয়ারের পানির তোড়ে আবারও বাঁধ ভেঙে চার গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। ভেসে গেছে তাদের আয়ের প্রধান উৎস চিংড়ি ঘের। বরাদ্দের পরও মূল বাঁধে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান কাজ না করায় আবারও ভাঙনের কবলে পড়েছে নদীরক্ষা বাঁধ।

ক্ষতিগ্রস্তদের অভিযোগ পানি উন্নয়ন বোর্ডের উদাসীনতার কারণে ঘূর্ণিঝড় আম্পানের ক্ষতি পুষিয়ে নিয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর আগেই আবারও প্লাবিত হলো।

যদিও পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষ বলছে, স্বেচ্ছাশ্রমে এলাকাবাসীর মাধ্যমে দ্রুতই মেরামত করা হবে ওই রিং বাঁধ। দেরিতে হলেও মূল বাঁধ মেরামতে কাজ শুরু হয়েছে।

মঙ্গলবার (৩০ মার্চ) দুপুরে সুপার মুন পূর্ণিমার গোনে নদীর পানি স্বাভাবিকের চেয়ে বৃদ্ধি পেয়ে আঘাত হানে দয়ারঘাট বেড়িবাঁধে। চারটি পয়েন্টে ভেঙে গ্রামের পর গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। ভেসে গেছে আশাশুনিবাসীর প্রধান আয়ের উৎস মৎস্য ঘের। তলিয়ে গেছে ক্ষেতের ফসল।

সকালে স্বেচ্ছাশ্রমে বাঁধ মেরামতের কাজ শুরু করলেও জোয়ারের পানির তোড়ে চারটির মধ্যে দুইটি ভাঙন এলাকা দিয়ে দুপুর থেকে পানি ঢোকা শুরু করেছে। গত ২০ মে রাতে প্রলয়ঙ্কারী ঘূর্ণিঝড় আম্পানের আঘাতে লণ্ডভণ্ড হয়ে যায় সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলা।

হতদরিদ্র মানুষ সর্বশান্ত হয়ে যায়। সেদিনের ক্ষতি পুষিয়ে উঠতে না উঠতে ধারদেনা করে ঘেরে মাছ ছেড়ে আর ক্ষেতে ফসল লাগায় তারা। যা পূর্ণিমার গোনে আবারও প্লাবিত হয়।

যারা ৯ মাসেও বাড়ি ফিরতে পারেনি তারা এবারের ভাঙনে চরম দুর্ভোগের মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন। আর এজন্য এলাকাবাসী দায়ী করছেন পানি উন্নয়ন বোর্ডকে। ত্রাণ নয়, টেকসই বাঁধ নির্মাণই ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাবাসীর দাবি।

বার বার বলার পরও দয়ারঘাটের দুটি পয়েন্টে ৯ মাসে বাঁধ নির্মাণ সম্ভব হয়নি, আর এজন্য পানি উন্নয়ন বোর্ডের উদাসীনতাকে দায়ী করেন আশাশুনি সদর উপজেলা চেয়ারম্যান স ম সেলিম রেজা মিলন।

স্বেচ্ছাশ্রমে এলাকাবাসীর মাধ্যমে দ্রুতই মেরামত করা হবে এ রিং বাঁধ উল্লেখ করে পানি উন্নয়ন বোডের নির্বাহী প্রকৌশলী সুধাংশু কুমার সরকার জানান, এ বাঁধ মেরামতে দেরী হলেও জরুরি ভিত্তিতে ঠিকাদার নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

ওই ভাঙনে দয়ারঘাট, দক্ষিণ জেলেখালী, জেলেখালীসহ সদরের ইউনিয়নের চারটি গ্রামের শতাধিক পরিবার মানবেতর জীবন কাটাচ্ছে।

Previous article‘স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়া’ ডেকে এনে মাদ্রাসাছাত্রকে গলা কেটে হত্যা
Next articleউবার-পাঠাওয়ে যাত্রী পরিবহনে বিআরটিএ’র নির্দেশনা
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।