স্বপন কুমার কুন্ডু: ঈশ্বরদীতে মঙ্গলবার (২৭ এপ্রিল) থেকে করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন শেষ হয়েছে। যেকারণে অনেকেই ২য় ডোজের টিকা নিতে পারছেন না। মঙ্গলবার ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ২য় ডোজের টিকা না পেয়ে অনেককে ফিরে যেতে দেখা গেছে।
সারা দেশের মতো গত ৮ ফেব্রুয়ারী ঈশ্বরদীতেও করোনা ভাইরাসের প্রথম ডোজের টিকা গ্রহন কার্যক্রম একযোগে শুরু হয়। টিকা গ্রহনে প্রথম দিকে অনেকেরই অনীহা ছিল। এই অবস্থায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ টিকা গ্রহনে আগ্রহ সৃষ্টির জন্য বিভিন্নভাবে প্রচার-প্রচারণা চালিয়েছেন।
সাম্প্রতিক সময়ে পার্শ্ববর্তী ভারতে করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারণ করায় স্থানীয় জনগোষ্টির মধ্যে টনক নড়ে। এই অবস্থায় সাধারণ মানুষের মধ্যে আগ্রহ সৃষ্টি হলে রেজিষ্ট্রেশনের পরিমাণ ও টিকা গ্রহন বাড়তে থাকে। হঠাৎ করেই করোনার ভ্যাকসিন শেষ হয়ে যাওয়ায় সাধারণ মানুষের মধ্যে চরম ভীতির সৃষ্টি হয়েছে।
হাসপাতাল সূত্র জানায়, ঈশ্বরদী হাসপাতালে মোট ১৭ হাজার ২৩৫ ডোজ টিকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছিল। প্রথম পর্যায়ে ১০ হাজার ৫০০ সহ মোট ১১ হ্জার ৬২ জ কে প্রথম ডোজের টিকা দেয় হয়। প্রথম পর্যায়ের ১০ হাজার ৫০০ জনের মধ্যে ৬ হাজার ১৭৩ জন দ্বিতীয় ডোজের টিকা গ্রহন করেছে। দ্বিতীয় ডোজ গ্রহনে বাকী রয়েছে ৪ হাজার ৩২৭ জন। কিন্তু মঙ্গলবার টিকা শেষ হয়ে যাওয়ায় দ্বিতীয় ডোজের টিকাও আর দেয়া সম্ভব হচ্ছে না।
এব্যাপারে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: আসমা খান বলেন, আজ ৫০ জনকে টিকা দেয়ার পর ভ্যাকসিন শেষ হয়েছে। ইতোমধ্যেই যোগাযোগ করা হয়েছে, আশা করছি অল্প সময়ের মধ্যেই ভ্যাকসিন পাওয়া যাবে।

Previous articleচৌহালীতে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে কম্বল আত্বসাতের অভিযোগ, তদন্ত কমিটি গঠন
Next articleসোনারগাঁওয়ে শপিংমলগুলোতে উপচেপড়া ভিড়
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।